logo
  • ঢাকা রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬

ট্রাম্প জোর করে চুমো খাননি: আইনজীবী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১৫ জুলাই ২০১৯, ২০:৩৯
যুক্তরাষ্ট্র, ট্রাম্প
ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রের ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারণা চলাকালে ডোনাল্ড ট্রাম্প তার নারী সহকারী আলভা জনসনকে জোর করে চুমো খাননি বলে জানিয়েছেন ট্রাম্পের আইনজীবী চার্লস হার্ডার।

গত ফেব্রুয়ারি মাসে দেশটির প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে করা এক মামলায় জনসন দাবি করেন, ২০১৬ সালের আগস্টে ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যে নির্বাচনী প্রচারণা চলাকালে ট্রাম্প তার সম্মতি ছাড়া তাকে চুমো খান।

তখন পুরুষ প্রচারণা কর্মীদের চেয়ে তাকে কম মজুরি দেয়া হয় বলেও দাবি করেন অ্যালাবামা অঙ্গরাজ্যে বসবাসরত জনসন। তবে হোয়াইট হাউস এবং ট্রাম্পের প্রচারণা দল তার অভিযোগ অস্বীকার করেন।

চলতি সপ্তাহের শুরুতে ট্রাম্পের প্রচারণা কর্মীদের ধারণ করা একটি দীর্ঘ ভিডিও থেকে কেটে নেয়া শর্ট ক্লিপ প্রকাশ করেন হার্ডার। এই শর্ট ক্লিপে পরিষ্কারভাবে জনসনের দাবির বিপরীত দৃশ্য দেখা গেছে।

ক্লিপটিতে ট্রাম্প চুমো খাওয়ার আগে জনসনকে বলতে শোনা যায়, ‘আর আমি আপনার জন্য ৮ মাস আমার পরিবারকে ছেড়ে আছি।’ জনসন আরও একবার বলেন, আপনার জন্য ৮ মাস।

এরপর ট্রাম্পের উদ্দেশে এই নারী সহকারীকে বলতে শোনা যায়, আশা করি আমরা আপনাকে হোয়াইট হাউসে পেতে যাচ্ছি। ফেব্রুয়ারি মাসে আপনার সঙ্গে আবার আমার দেখা হবে।

গত বুধবার আদালতে ট্রাম্পের আইনজীবী হার্ডার যুক্তি উপস্থাপন করে জানান, এই ভিডিও অনুসারে ট্রাম্প যেভাবে জনসনকে চুমো খেয়েছেন, তাতে তার অভিযোগ ‍পুরোপুরি অবান্তর।

তার মতে, এটি ছিল তাদের মধ্যকার একটি সংক্ষিপ্ত ও সরল মিথস্ক্রিয়া। এটি পারস্পরিক, জবরদস্তিমূলক নয়। এদিকে ভিডিওটি প্রকাশের পর আদালতে একটি নথি দায়ের করেছেন জনসনের আইনজীবীরা।

তাদের মতে, জনসনকে অপ্রত্যাশিতভাবে চুমো খাওয়ার দৃশ্যটিই স্পষ্ট হয়েছে এই ভিডিওতে। জনসনের আইনজীবী হাসান জাভারিই এক বিবৃতিতে জানান, তারা এখনও মূল ভিডিওটি পাননি।

কে/সি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ
  • আন্তর্জাতিক এর পাঠক প্রিয়