logo
  • ঢাকা বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯, ২ শ্রাবণ ১৪২৬

উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা অ্যাসাঞ্জের সহযোগীও গ্রেপ্তার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১২ এপ্রিল ২০১৯, ১৯:১৪ | আপডেট : ১২ এপ্রিল ২০১৯, ২১:০৪
ছবি: যুক্তরাজ্যের গণমাধ্যম ডেইলি মেইল অনলাইন

ইকুয়েডরের প্রেসিডেন্ট লেনিন মরেনোকে ব্ল্যাকমেইল করার কথিত পরিকল্পনায় বিশ্বব্যাপী সাড়া জাগানো উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জের সঙ্গে যুক্ত থাকার সন্দেহে তার সহযোগী ওলা বিনিকে গ্রেপ্তার করেছে দেশটির কর্তৃপক্ষ।

বৃহস্পতিবার জাপানের উদ্দেশে একটি ফ্লাইটে রওনা হওয়ার প্রাক্কালে কুইটো বিমানবন্দর থেকে সুইডেনের নাগরিক বিনিকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে ইকুয়েডরের সরকারি কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে জানিয়েছে যুক্তরাজ্যের গণমাধ্যম ডেইলি মেইল অনলাইন।

দেশটির কর্তৃপক্ষ সফটওয়্যার ডেভেলপার বিনিকে অভিযুক্ত করেনি কিন্তু প্রেসিডেন্ট মরেনোকে ব্ল্যাকমেইল করার সম্ভাব্য প্রচেষ্টায় তিনি অ্যাসাঞ্জ ও উইকিলিকসের অংশ ছিলেন কিনা তা খতিয়ে দেখছে।

ইকুয়েডরের সরকারের বিরুদ্ধে চক্রান্ত করার সন্দেহে একজনকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মারিয়া পাউলা রোমো।

তিনি যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যম সিএনএনের স্প্যানিশ সার্ভিসকে বলেন, দেশীয় রাজনীতিতে উইকিলিকসের হস্তক্ষেপ বিষয়ক তথ্য আছে আমাদের কাছে। তদন্তের জন্য অ্যাসাঞ্জের এক সহযোগীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জাপানের উদ্দেশে দেশত্যাগের প্রাক্কালে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

তবে বিনি অ্যাসাঞ্জের সঙ্গে কোনও ধরনের চক্রান্তে জড়িত থাকতে পারে বলে মানতে নারাজ তার বন্ধুরা।

ভারতে একটি মার্ক্সিস্ট পাবলিশিং হাউস পরিচালনাকারী বিজয়প্রসাদ বিনির খুব কাছের বন্ধু। তিনি বলেন, উইকিলিকস বা অ্যাসাঞ্জের সঙ্গে বিনির কোনও সম্পৃক্ততা ছিল বলে জানি না। তিনি একজন প্রাইভেসি অ্যাডভোকেট হিসেবে কাজ করতেন।

এগুলোকেই অন্যায়ভাবে অপরাধমূলক কার্যক্রমের সঙ্গে যুক্ত করা হয়েছে বলে দাবি প্রসাদের।

ব্রিটিশ সফটওয়্যার ডেভেলপার মার্টিন ফৌলার জানান, তার বন্ধু ও সহযোগী বিনি ইকুয়েডরে গ্রেপ্তার হওয়ায় তিনি খুবই উদ্বিগ্ন।

এদিকে দীর্ঘ সাত বছর পর বৃহস্পতিবার লন্ডনের ইকুয়েডর দূতাবাসে রাজনৈতিক আশ্রয়ে থাকা অ্যাসাঞ্জকে গ্রেপ্তার করা হয়। লন্ডনের পুলিশ জানায়, আদালতের গ্রেপ্তারি পরোয়ানার পরও আত্মসমর্পণ না করায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

কে/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়