logo
  • ঢাকা রবিবার, ২৫ আগস্ট ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬

ঘানার নাগরিকদের ভিসা দিতে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২০:৫৯ | আপডেট : ০১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২২:১০
ছবি: বিবিসি

ঘানায় ফিরে যেতে আগ্রহী সাত হাজার নাগরিককে ফিরিয়ে নিতে রাজি না হওয়া দেশটির নাগরিকদেরকে ভিসা প্রদানে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

আক্রায় যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস শুধু আমেরিকায় নিয়োগপ্রাপ্ত ঘানার সরকারি কর্মকর্তাদের ভিসা দেবে বলে জানিয়েছে যুক্তরাজ্যের শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যম বিবিসি।

দূতাবাসটির এক বিবৃতিতে বলা হয়, আগামী ৪ ফেব্রুয়ারি থেকে যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত ঘানার কূটনীতিকদের দেশীয় কোনও কর্মীকে ভিসা দেয়া হবে না।

আরও বলা হয়, সরকার ও সংসদের কর্মী এবং তাদের পরিবারের সদস্যরাও বিধিনিষেধের আওতায় পড়বে। এক্ষেত্রে ভিসার সংখ্যা ও মেয়াদ কমিয়ে দেয়া হবে।

কিন্তু একটি ভিসা আবেদন প্রক্রিয়া থেমে থাকা মানেই তা প্রত্যাখ্যাত হওয়া নয়। এর মানে হলো নিষেধাজ্ঞা তুলে না নেওয়া পর্যন্ত তা স্থগিত থাকবে বলেও জানানো হয় দূতাবাসটির পক্ষ থেকে।

যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি কর্মকর্তারা সতর্ক করে বলেছেন, যদি সমস্যাটির সমাধান না হয়, তবে এই নিষেধাজ্ঞার পরিধি বাড়তে পারে। আরও বেশকিছু ক্যাটাগরি এর অন্তর্ভুক্তি হতে পারে।

গত বছর এসব নাগরিকদের বিষয়ে জানতে চাওয়া হয় ঘানার কাছে।

কিন্তু গত সেপ্টেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত দেশটির রাষ্ট্রদূত বাফৌর অ্যাডজেই’র বরাত দিয়ে স্থানীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে বলা হয় যে তাদেরকে দেশে ফিরিয়ে নেয়ার বিষয়ে একটি সম্মতিতে পৌঁছেছে তারা।

যুক্তরাষ্ট্র এই সাত হাজার মানুষকে তাদের ভিসার শর্ত না মানাসহ একাধিক অভিবাসন অপরাধে অভিযুক্ত করে।

বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের সেক্রেটারি অব হোমল্যান্ড সিকিউরিটি কির্স্টজেন নিয়েলসেন এক বিবৃতিতে বলেন, ঘানা তাদের নাগরিককে আদেশ দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র থেকে ফিরিয়ে নিতে ব্যর্থ হয়েছে। অথচ আন্তর্জাতিক আইন অনুসারে এটা করতে তারা বাধ্য।

গত বছর ঘানার কর্তৃপক্ষ বলে এই সাত হাজার মানুষকে ফিরিয়ে নেয়ার প্রক্রিয়াটি বিলম্বিত হতে পারে। কারণ তারা দেশটির নাগরিক কিনা তা খতিয়ে দেখতে হবে। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রে এসব মানুষের সঙ্গে যে ধরনের আচরণ করা হয় তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে তারা।

ঘানার গণমাধ্যম ‘সিটি নিউজরুম’র খবরে বলা হয়, দেশটির এসব নাগরিকের বেশ কয়েকজনকে হাতকড়া পরিয়ে জোর করে একটি প্লেনে ওঠানো হয়। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র তা অস্বীকার করেছে।

কে/পি

bestelectronics bestelectronics
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়