logo
  • ঢাকা রোববার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ২৮ চৈত্র ১৪২৭

যুক্তরাষ্ট্রে মুসলিম কয়েদিদের ইফতারে শূকরের মাংস!

যুক্তরাষ্ট্রের আলাস্কা অঙ্গরাজ্যের একটি কারাগারে মুসলিম বন্দিদের ইফতারিতে শূকরের মাংস দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে অধিকার কর্মীরা। আর এ ঘটনায় দ্য কাউন্সিল অন আমেরিকান-ইসলামিক রিলেশন্স (সিএআইআর) মঙ্গলবার অ্যানকোরেজ কারেকশনাল কমপ্লেক্সের বিরুদ্ধে মামলাও দায়ের করেছেন। খবর বার্তা সংস্থা এএফপি’র।

ওই মামলায় বলা হয়েছে, ‘নিষ্ঠুর ও অস্বাভাবিক শাস্তির’ ব্যাপারে সাংবিধানিক যে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে কারা কর্তৃপক্ষ তা লঙ্ঘন করেছে।

পরে মুসলিম বন্দিদের এ ধরনের খাবার সরবরাহ না করতে নিষেধাজ্ঞা জারি করে বৃহস্পতিবার একটি আদেশ দেন আদালত।

--------------------------------------------------------

আরও পড়ুন : পরমাণু সমঝোতায় ইরানের থাকার বিষয় ইউরোপের ওপর নির্ভরশীল

--------------------------------------------------------

সিএআইআর জানাচ্ছে, আলাস্কার ডিসট্রিক্ট কোর্ট তাদের আবেদন মঞ্জুর করে এ বিষয়ে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে এবং সরকার প্রণীত স্বাস্থ্য নির্দেশিকা অনুযায়ী বন্দিদের পর্যাপ্ত খাবার সরবরাহ করতে কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন।

ওয়াশিংটনভিত্তিক এই প্রতিষ্ঠানটি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর আমেরিকান মুসলিম ও অন্যান্য সংখ্যালঘু গ্রুপ গোঁড়ামির শিকার হচ্ছে বলে সিএআইআর জানতে পেরেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের অ্যানকোরেজের মুসলমানরা প্রায় ১৮ ঘণ্টা ধরে রোজা পালন করছেন। এএফপি’র প্রতিবেদনে বলা হয়, রোজা পালনের সময় একজন ব্যক্তির দৈনিক আড়াই হাজার ক্যালরির দরকার হয়, সেখানে মুসলমান বন্দীদের যে ধরনের খাবার দেয়া হয় তা থেকে এক হাজার ১০০ ক্যালরি পাওয়া যায়।

এছাড়া বন্দিদের যে খাবারের প্যাকেট সরবরাহ করা হয় তা শূকরের মাংস দিয়ে প্রস্তুত করা। অথচ শূকরের মাংস ইসলামে নিষিদ্ধ।

তবে এ বিষয়ে আলাস্কা সংশোধন বিভাগের পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। গত ১৬ মে থেকে যুক্তরাষ্ট্রে রমজান শুরু হয়েছে। শেষ হবে আগামী ১৫ জুন বা তার কাছাকাছি তারিখে।

আরও পড়ুন :

এ/পি

RTV Drama
RTVPLUS