• ঢাকা সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১
logo

ওড়িশার প্রথম মুসলিম নারী এমএলএ, কে এই সোফিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ১০ জুন ২০২৪, ১৭:৪৮
ছবি: সংগৃহীত

ভারতের ওড়িশার বারাবাতি-কটক আসনের কংগ্রেস বিধায়ক, ইতিহাস তৈরি করেছেন সোফিয়া ফেরদৌস। প্রথম মুসলিম মহিলা বিধায়ক হিসাবে ওড়িশা বিধানসভায় নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। বিধানসভা নির্বাচনের সময় ৮ হাজারের বেশি ভোটে বিজেপির ৬৯ বছর বয়সী প্রখ্যাত চিকিৎসক পূর্ণ চন্দ্র মহাপাত্রকে পরাজিত করেছিলেন।

জানা গেছে, সোফিয়া ফিরদউস ওড়িশার প্রথম মহিলা মুখ্যমন্ত্রী নন্দিনী সতপথিকে অনুসরণ করেন। সতপথি ১৯৭২ সালে একই আসনের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন। যদিও ১৯৩৭ সাল থেকে ওড়িশায় ১৪১ জন মহিলা বিধায়ক হয়েছেন, তবে বারাবাতি-কটকের প্রাক্তন বিধায়ক মহম্মদ মকিমের কন্যা সোফিয়ার আগে কোনও মুসলিম মহিলা বিধানসভা আসন জেতেননি।

বিরোধী প্রসঙ্গে সোফিয়া ফেরদৌস জানিয়েছেন, আমি আমার বিরোধীদের বিরুদ্ধে একটি শব্দও উচ্চারণ করিনি। আসলে, মহাপাত্রের প্রতি আমার অগাধ শ্রদ্ধা আছে কারণ তিনি আমারও ডাক্তার।

রাজনৈতিক পরিবারের কন্যা সোফিয়া ফিরদৌসের বয়স ৩২ বছর। তিনি প্রবীণ কংগ্রেস নেতা মোহাম্মদ মকিমের মেয়ে। সাম্প্রতিক ওড়িশা বিধানসভা নির্বাচনে মোকিমের জায়গায় ফিরদৌসকে সুযোগ দিয়েছিল দলের হাইকমান্ড। এ প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে সোফিয়া বলেছেন, ‌‘আমি বাবার কাছ থেকে নির্বাচনী প্রচার এবং পরিচালনার শিল্প শিখেছি। সেই সময়ে, আমি কংগ্রেস কর্মীদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে প্রচারপত্র বিতরণ এবং ভোটারদের বোঝানোর জন্য ঘরে ঘরে গিয়ে কাজ করেছি। তাই, তারা আমার সঙ্গে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেছিলেন। এটি আমাকে টিকিট দেওয়ার জন্য দলীয় নেতাদের প্রভাবিত করতে পারে।’

তিনি বলেছিলেন, আমি খুব হাসিমুখে মানুষের সঙ্গে দেখা করি। আমার ট্যাগলাইন ‘কটকের মেয়ে, কটকের পুত্রবধূ’, যা নির্বাচনী প্রচারের সময় ভোটারদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিল।

সোফিয়া ফেরদৌস কলিঙ্গা ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডাস্ট্রিয়াল টেকনোলজি থেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ডিগ্রি অর্জন করেছেন। তিনি ২০২২ সালে ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ ম্যানেজমেন্ট, বেঙ্গালুরু থেকে এক্সিকিউটিভ জেনারেল ম্যানেজমেন্ট প্রোগ্রামও সম্পন্ন করেছিলেন। ৩.৬৪ কোটি টাকার ঘোষিত সম্পদসহ সোফিয়া একটি রিয়েল এস্টেট কোম্পানির পরিচালক এবং কনফেডারেশন অফ রিয়েল এস্টেট ডেভেলপারস অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া (ক্রেডাই) এর ভুবনেশ্বর অধ্যায়ের সভাপতি। তিনিই প্রথম নারী যিনি ক্রেডাই চ্যাপ্টারের প্রধান। কেআইআইটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে তার বিটেক শেষ করার পর, তিনি ২৪ বছর বয়সে রিয়েল এস্টেট সেক্টরে প্রবেশ করেন। ফেরদৌসও আইএনডব্লিউইসি ইন্ডিয়ার একজন মূল সদস্য। তিনি উদ্যোক্তা শেখ মেরাজ উল হককে বিয়ে করেছেন।

প্রসঙ্গত, ওড়িশার ১৪৭ সদস্যের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি ৭৮টি আসন জিতেছে। এইভাবে, বিজেপি গত ২৪ বছর ধরে রাজ্য শাসনকারী বিজেডিকে হটিয়ে ক্ষমতা ছিনিয়ে নিয়েছে। নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, বিজেডি জিতেছে ৫১ আসন।

মন্তব্য করুন

daraz
  • আন্তর্জাতিক এর পাঠক প্রিয়
আরও পড়ুন
বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে গঙ্গার পানি বণ্টন চুক্তির নবায়নে ক্ষুব্ধ তৃণমূল
দেশে ফিরলেন ভারতে পাচার হওয়া ১৩ বাংলাদেশি
ভারতের বিপক্ষে হারের কারণ ব্যাখ্যা করলেন তামিম
রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে ভারতের সহায়তা চেয়েছি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী