Mir cement
logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ০২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:০৪

গর্ভপাত বিরোধী আইন নিয়ে উত্তাল আমেরিকা

গর্ভপাত বিরোধী আইন ঘিরে উত্তাল আমেরিকা
সংগৃহীত

টেক্সাসের একটি গর্ভপাত বিরোধী আইনকে ঘিরে উত্তাল হয়ে উঠেছে দেশটি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন গর্ভপাত বিরোধী এই আইনে নিন্দা জানালেও দেশটির সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, তারা টেক্সাসের এই আইনকে আটকাবে না। এই আইন কার্যকর হওয়ায় রাজ্যের অধিকাংশ নারীই এখন আর গর্ভপাত করাতে পারবে না। খবর বিবিসির।

আলোচিত এই তথাকথিত আইনের নাম হচ্ছে- হার্টবিট অ্যাক্ট। এই আইন পাস হওয়ায় কোনও নারীর গর্ভে কোনও ভ্রূণের হৃদস্পন্দন শোনা গেলেই আর গর্ভপাত করাতে পারবেন না তিনি। এই ভ্রূণের হৃদস্পন্দন এমন এক গর্ভাবস্থা যখন অনেক নারীই জানেন না যে, তিনি গর্ভবতী। বুধবারই কার্যকর হয় এই আইন।

এরপরই নড়েচড়ে বসে অধিকার গ্রুপগুলো। এই আইনের বাস্তবায়ন বন্ধে একটি স্থগিতাদেশের আহ্বান জানায় তারা। পরে রাতে এ নিয়ে ভোটাভুটি অনুষ্ঠিত হলে তা ৫-৪ ভোটে বাতিল হয়ে যায়। পরে অলিখিত এক ব্যাখ্যায় আদালতের সংখ্যাগরিষ্ঠরা জানান, তাদের এই সিদ্ধান্ত ‘টেক্সাসের আইনের সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতার ওপর ভিত্তি করে নয়’ এবং আইনি চ্যালেঞ্জগুলো চালিয়ে নেয়া যেতে পারে।

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের আমলে নিয়োগ পাওয়া সুপ্রিম কোর্টের তিনজন বিচারপতি এই স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে ভোট দেন। পরে উষ্মা প্রকাশ করে লেখা এক মতামতে উদার বিচারপতি সোনিয়া সোটোমেয়র বলেন যে আদালতের আদেশ ‘চমকপ্রদ’। সংখ্যাগরিষ্ঠ বিচারপতি তাদের মাথা বালুর নিচে ঢুকিয়ে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

এদিকে বুধবার এই আইনের কড়া সমালোচনা করেন বাইডেন। এটিকে ‘চরম’ বলে উল্লেখ করে বাইডেন বলেন, এর ফলে নারীর স্বাস্থ্যসেবা পাওয়ার অধিকার ‘উল্লেখযোগ্যভাবে বাধাগ্রস্ত’ হতে পারে। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, তার প্রশাসন বর্তমান আইন দ্বারা নারীদের অধিকারগুলোকে রক্ষা করবে, যা প্রায় অর্ধ-শতাব্দী ধরে প্রচলিত আছে।

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS