Mir cement
logo
  • ঢাকা সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৫ আশ্বিন ১৪২৮

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ০১ আগস্ট ২০২১, ১০:৫৪
আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২১, ১২:১৭

তুরস্কে দাবানলে পুড়ছে পশু-পাখি, পাঁচ প্রদেশ দুর্যোগ অঞ্চল ঘোষণা

তুরস্কে ভয়াবহ দাবানলে পুড়ছে পশু-পাখি, পাঁচ প্রদেশ দুর্যোগ অঞ্চল ঘোষণা
সংগৃহীত ছবি

ভয়াবহ দাবানলে গত বুধবার থেকে জ্বলছে তুরস্কের দক্ষিণাঞ্চলের কয়েকটি প্রদেশ। দমকা বাতাস আগুনের তীব্রতাকে আরও বাড়িয়ে তুলছে। বনাঞ্চলে ছড়িয়ে পড়া সেই আগুনে বন্যপ্রাণীর পাশাপাশি গৃহপালিত পশু-পাখিও মারা যাচ্ছে। এ অবস্থায় দেশটির পাঁচটি প্রদেশ ‘দুর্যোগ অঞ্চল’ ঘোষণা করেছেন প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান।

বহু মানুষ তাদের সবকিছু হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে গেছে। কয়েক বছরের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ এ দাবানলে শনিবার পর্যন্ত অন্তত ছয় জনের মৃত্যু হয়েছে বলে গণমাধ্যম সিএনএন তুর্কের বরাতে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, দাবানলে পুড়ে গেছে অনেক ঘর-বাড়ি ও বনভূমি। তবে দমকল বাহিনীর প্রচেষ্টায় শনিবার পর্যন্ত ৮৮ জায়গার আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা গেছে। দাবানলের ভয়াবহতা থামাতে লড়ছে দেশটির বিভিন্ন জরুরি সংস্থার কর্মীরা। কিছু জায়গার পরিস্থিতি উন্নতি হলেও পুরোপুরি নিন্ত্রেণ আনা যায়নি।

দেশটির কৃষি ও বনমন্ত্রী বেকির পাকদেমিরলি শনিবার এক টুইট বার্তায় বলেন, এন্টালিয়ার জনপ্রিয় পর্যটক অঞ্চলে তিনটি স্থানের আগুন এখনো সক্রিয় রয়েছে।

তুরস্কের ভূমধ্যসাগরীয় উপকূলে আগুন বিশেষভাবে গুরুতর ছিল। সেখানে প্রবল বাতাস অগ্নি নির্বাপণে বাধা সৃষ্টি করে। ফলে অনেক অঞ্চল এবং হোটেল খালি করা হয়েছে। পর্যটকদের নৌকায় করে নিরাপদ স্থানে নেওয়া হয়েছে।

এদিকে বন্যপ্রাণীর পাশাপাশি গৃহপালিত অনেক পশু-পাখি আগুন পুড়ে মারা গেছে। এ সংখ্যা কত এখনও জানা যায়নি। পরিস্থিতি নিয়ে শনিবার তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোগান বলেন, দাবানলে আমাদের যে মানুষগুলো আহত এবং মৃত্যু হয়েছে তাদের ক্ষতিপূরণ দিতে সব ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

তুরস্কের ভূম্যধ্যসাগরের উপকূলীয় পাঁচ প্রদেশে দুর্যোগ অঞ্চল ঘোষণা করেন তিনি। দাবানল নিয়ন্ত্রণে ৪৫টি হেলিকপ্টার, ৫৫টি ভারী যানবাহন এবং ১০৮০টি জলযান কাজ করছে।

সূত্র : রয়টার্স

টিএস

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS