Mir cement
logo
  • ঢাকা বুধবার, ০৪ আগস্ট ২০২১, ২০ শ্রাবণ ১৪২৮

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ১৭ জুলাই ২০২১, ১০:২৬
আপডেট : ১৭ জুলাই ২০২১, ১০:৩৩

‘কিউবাকে ‘ধ্বং'সের’ মার্কিন প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে’

কিউবাকে ‘ধ্বংসের’ মার্কিন প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে
সংগৃহীত

কিউবাকে ‘ধ্বংস’ করার সাম্প্রতিক মার্কিন প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে বলে দাবি করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট মিগুয়েল দিয়াজ-কানেল। শুক্রবার তিনি নিজের অফিসিয়াল টুইটার পেজে দেয়া এক পোস্টে লিখেছেন, ওয়াশিংটন শত শত কোটি ডলার খরচ করে কিউবাকে ধ্বংস করতে চেয়েও ব্যর্থ হয়েছে। খবর পার্সটুডের।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন কিউবাকে ‘একটি ব্যর্থ রাষ্ট্র’ হিসেবে অভিহিত করার একদিন পর প্রেসিডেন্ট দিয়াজ-কানেল এমন প্রতিক্রিয়া জানালেন।

কিউবার প্রেসিডেন্ট তার টুইটার পোস্টে লিখেছেন, একটি ব্যর্থ রাষ্ট্র এমন একটি রাষ্ট্র যার প্রতিক্রিয়াশীল সংখ্যালঘুদের খুশি করতে এবং ব্ল্যাকমেইল করার জন্য কিউবার এক কোটি ১০ লাখ জনগণ তথা সংখ্যাগরিষ্ঠ জনগোষ্ঠীর ক্ষতি করার চেষ্টা করা হয়।

কিউবার প্রেসিডেন্ট তার দেশের বিরুদ্ধে ১৯৬২ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্যিক নিষেধাজ্ঞার প্রতি ইঙ্গিত করে যা সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের শাসনামলে পুনরায় কার্যকর করা হয়।

বাইডেন বৃহস্পতিবার তার বক্তব্যে ‘নিজের জনগণের ওপর নিপীড়ন’ চালানোর জন্য হাভানাকে অভিযুক্ত করে বলেন, কিউবায় ইন্টারনেট ব্যবহারের ওপর যে বিধিনিষেধ রয়েছে তা জোর করে তুলে দেয়ার চেষ্টা চালাবে তার প্রশাসন।

এর প্রতিক্রিয়ায় প্রেসিডেন্ট দিয়াজ-কানেল বলেন, কিউবার জনগণের জন্য প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের যদি বিন্দুমাত্র দরদ থাকতো তাহলে তিনি ট্রাম্পের শাসনামলে আরোপিত ২৪৩টি নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতেন। এসব নিষেধাজ্ঞার মধ্যে অন্তত ৫০টি আরোপ করা হয়েছে করোনা মহামারি শুরু হওয়ার পর।

কিউবায় সম্প্রতি টানা পাঁচদিন ধরে সরকার বিরোধী সহিংসতায় অন্তত একজন নিহত ও বেশ কিছু লোক আহত হয়েছে। নিরাপত্তা বাহিনী অন্তত ১০০ জনকে আটক করেছে। প্রেসিডেন্ট মিগুয়েল দিয়াজ-কানেল সরকার এই সহিংসতার জন্য সরাসরি যুক্তরাষ্ট্রকে দায়ী করেছে।

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS