Mir cement
logo
  • ঢাকা বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১৩ শ্রাবণ ১৪২৮

দু’বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ দাম বাড়লো জ্বালানি তেলের

দু’বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ দাম বাড়লো জ্বালানি তেলের
সংগৃহীত ছবি

আন্তর্জাতিক বাজারে গত দুই বছরের মধ্যে অপরিশোধিত তেলের দাম সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে। বুধবার নিউ ইয়র্কের ব্রেন্ট ক্রুড প্রতিব্যারেল ৭৬ ডলারে বিক্রি করেছে। ২০১৮ সালের অক্টোবর মাসের পর এটি সর্বোচ্চ দাম।

মার্কিন অপরিশোধিত তেলের মজুদ থেকে গত সপ্তাহে ৭৬ লাখ ব্যারেল তেল কমে ৪৫ কোটি ৯১ লাখ ব্যারেলে দাঁড়ায়। দেশটিতে ভ্রমণ প্রবণতা বেড়ে যাওয়ার প্রেক্ষাপটে তেলের মজুদ কমে যায় এবং এতেই উত্তোলন বৃদ্ধি সত্ত্বেও দাম বেড়ে গেছে।

বিশ্লেষকদের ধারণা, কোভিড বিধিনিষেধ শিথিল করায় ইউরোপ ও উত্তর আমেরিকায় ভ্রমণ চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছেছে, যার জন্য বিমান সংস্থাগুলোর বাড়তি তেলের (জ্বালানি) প্রয়োজন হচ্ছে। এ কারণে তেলের দাম বেড়ে গেছে।

এদিকে বুধবার দ্য আমেরিকান পেট্রোলিয়াম ইনস্টিটিউটের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের তেল শোধনাগার কোম্পানিগুলো তেল সরবরাহে ব্যর্থ হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের দুটি বাজার সূত্রে জানা গেছে, যুক্তরাষ্ট্রের বড় বড় তেল কোম্পানি বিশেষত রয়্যাল ডাচ শেল তাদের বার্ষিক সাত দশমিক দুই মিলিয়ন ব্যারেল জ্বালানি সরবরাহ করতে ব্যর্থ হয়েছে। ফলে তেলের দাম বাড়ছে।

মার্কিন এনার্জি ইনফরমেশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের তথ্য অনুযায়ী, ব্রেন্ড ক্রুডের দাম ৮১ সেন্ট বা এক দশমিক এক শতাংশ বেড়ে ব্যারেলপ্রতি ৭৫ দশমিক ৭৬ ডলারে পৌঁছেছে। যা গত ২০১৮ সালের অক্টোবর থেকে সর্বোচ্চ। অন্যদিকে, যুক্তরাষ্ট্রের ডব্লিউটিআই সূচক ৪৯ সেন্ট বা দশমিক সাত শতাংশ বেড়ে ব্যারেল প্রতি ৭৩ দশমিক ৩৪ ডলারে পৌঁছেছে, যা ও গত ২০১৮ সালের অক্টোবর থেকে সর্বোচ্চ দাম।

এক দিন আগেই মঙ্গলবার কাতার ইকোনমিক ফোরামের বৈঠকে যোগ দিয়ে বড় বড় তেল কোম্পানির প্রধানরা ‘এখনই তেল খাতে বিনিয়োগ না বাড়ালে তেলের দাম আরও বেড়ে যাবে’ বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। তারা বলছেন, তেল খাতে প্রয়োজনীয় বিনিয়োগের অভাবে তেলের সরবরাহ কমে যেতে পারে এবং তার কারণে আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম বাড়বে। রয়্যাল ডাচ শেল এবং টোটাল এনার্জি হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় তেল কোম্পানি এবং তারা ভবিষ্যদ্বাণী করছে যে, অপরিশোধিত তেলের মূল্য ব্যারেলপ্রতি ১০০ ডলার পর্যন্ত পৌঁছাতে পারে।

সূত্র : আরব নিউজ

টিএস

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS