Mir cement
logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ৪ আষাঢ় ১৪২৮

ইউটিউবে বাবাকে খু'নের বর্ণনা দিলো ফুর্তিতে মত্ত টিনএজ যুগল

ইউটিউবে বাবাকে খুনের বর্ণনা দিলো ফুর্তিতে মত্ত টিনএজ যুগল
ভিডিও থেকে সংগৃহীত ছবি

সন্তানকে বড় করতে বাবা ও মা নিজেদের পুরো জীবন দিয়ে তাদের প্রতিপালন করেন। সেই সন্তানরাই মাঝেমধ্যে যা কাজ করে তাতে শিউরে উঠতে হয়। এরকমই ন্যাক্কারজনক এক ঘটনা ঘটেছে আমেরিকার লাস ভেগাসে।

কিশোরী মেয়েটি মাত্র ১৬ বছরের আর তার বয়ফ্রেন্ডের বয়স ১৮ বছর। এই ১৬ ও ১৮ বছরের প্রেমিকযুগল মিলে মেরে ফেলল মেয়ের বাবাকে। এমনকী খুনের পর তারা ছুটি কাটাতে বেরিয়ে যায়।

এরপর ওই যুগল ইউটিউবে ভিডিও পোস্ট করে আর সেখানে বলে কী ভাবে মেয়ের বাবাকে হাসতে হাসতে মেরে ফেলেছে তারা দু’জন মিলে।

যে মেয়েটি এই ঘটনাটি ঘটায় তার নাম সিয়েরা হলসেথ। আর তার বয়ফ্রেন্ডের নাম অ্যারন গুরেরো। ভিডিওতে দু’জনকে দেখা গেছে একসঙ্গে সেই ঘটনার বিবরণ দিতে। হাসতে হাসতে গল্প করতে করতে কীভাবে মেয়েটির বাবাকে তারা মেরে ফেলেছে তারই কথা বলা হয়েছে।

নিজেদের ভিডিওতে তারা বলেছে কীরকমভাবে মেয়েটির বাবাকে মেরে ফেলার পর ৩ দিন হয়ে গেছে আর এটা বোঝাতে ক্যামেরায় তিনটি আঙুল দেখায় তারা। এই সময়েই মেয়েটি তার বয়ফ্রেন্ডেকে চেঁচিয়ে বলে ক্যামেরারা সামনে তার বয়ফ্রেন্ড যেন এই কথা না বলে। এর উত্তরে বয়ফ্রেন্ড বলে যে ও এরই যোগ্য ছিল। যে কথায় সেই মেয়েটি জানায় সে এই বিষয়ে সহমত।

ভিডিওতে টিনএজার যুগলকে একটি তাঁবুর মধ্যে দেখা যায়। দুজনেই সেখানে ফুর্তি করছিল। বাবাকে মেরে ফেলার কোনও অনুতাপ ছিল না। বোঝা যাচ্ছিল না তারা এরকম ভয়ানক কোনও কাজ করেছে।

সিয়েরা ১৬ বছরের হওয়ায় তার মৃত্যুর সাজা হবে না। কিন্তু তার বয়ফ্রেন্ড যেহেতু ১৮ বছরের তাই তার কোনও ছাড় হবে না। মেয়েটির পরিবার জানিয়েছে তারা বেশ কিছুদিন ধরেই তাকে খুঁজছে। মনে করা হচ্ছে ওই টিনএজার কাপল পালিয়ে গেছে। কিন্তু তাদের খুঁজে হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ। সূত্র : ডেইলি মেইল

টিএস

RTV Drama
RTVPLUS