Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৯ জুন ২০২১, ৫ আষাঢ় ১৪২৮

সামনে গাঁজার ফার্ম, আড়ালে বিশাল বিটকয়েনের খনি

সামনে গাঁজার ফার্ম, আড়ালে বিশাল বিটকয়েনের খনি
সংগৃহীত ছবি

এবার কেঁচো খুঁড়তে গিয়ে বেরিয়ে এলো সাপ। গাঁজা চাষ করে এমন একটি ফার্মে অভিযান চালাতে গিয়ে তার নিচে পাওয়া গেলো বিশাল ক্রিপ্টোকারেন্সি মাইন। এটি পরিচালনা করা হতো আবার জাতীয় গ্রিডের বিদ্যুতের অবৈধ লাইন টেনে।

ব্রিটেনের বার্মিংহামের উত্তরপশ্চিমাঞ্চলে এমন একটি অপরাধ কেন্দ্র খুঁজে পেয়েছে দেশটির পুলিশ। এখন জানা যাচ্ছে, এই ক্রিপ্টোকারেন্সি মাইন পরিচালনা করতে হাজার হাজার পাউন্ডের বিদ্যুৎ চুরি করেছে অপরাধীরা।

এ নিয়ে অভিযানে অংশ নেয়া সার্জেন্ট জেনিফার গ্রিফিন বলেন, আমাদের কোনো ধারণাই ছিল না সেখানে কী আছে। সেখানে গাঁজা চাষ চলছিল। আমার বিশ্বাস, এই এলাকায় এরকম আরো অনেক ক্রিপ্টো মাইন খুঁজে পাওয়া যাবে। পুলিশ বিশ্বাস করে, এই অপরাধ কেন্দ্রটি থেকে মূলত বিটকয়েনের ব্যবসা করা হতো।

সেখান থেকে উদ্ধার করা হয়েছে প্রায় ১০০টি কম্পিউটার। এগুলো পরিচালিত হতো বাইপাস হওয়া বিদ্যুতের লাইন থেকে। তবে অভিযানের সময় সেখানে কেউ ছিল না। তাই কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। এ নিয়ে তদন্ত চলছে।

ক্রিপ্টোকারেন্সি মাইনিং করতে প্রচুর বিদ্যুতের প্রয়োজন হয়। ডয়চে ব্যাংকের তথ্যানুযায়ী, বিটকয়েন মাইনিং করতে প্রতি বছর যে বিদ্যুতের প্রয়োজন পরে ততো বিদ্যুৎ সুইজারল্যান্ডও ব্যবহার করে না। ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানিও বুধবার সবধরনের ক্রিপ্টোকারেন্সি মাইনিং নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছেন। সূত্র : বিবিসি

টিএস

RTV Drama
RTVPLUS