Mir cement
logo
  • ঢাকা সোমবার, ১০ মে ২০২১, ২৭ বৈশাখ ১৪২৮

‘আমি একজন ভয়ঙ্কর কঙ্কাল’

I’m a horrible skeleton- Navalny in court after hunger strike
সংগৃহীত ছবি

রাশিয়ার বিরোধী নেতা হিসেবে পরিচিত অ্যালেক্সেই নাভালনি কারাগারে সুচিকিৎসার দাবিতে দীর্ঘ ২৪ দিন অনশন করার পর প্রথমবারের মতো জনসম্মুখে হাজির হয়েছেন।

মানহানির একটি মামলায় ভার্চুয়ালি আদালতে হাজির হন তিনি। সেখানে নাভালনির শরীরের বেহাল দশা দেখা গেছে। তাকে দেখে চেনার উপায়ই নেই।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো নাভালনির শরীরের অস্থিচর্মসার অবস্থা নিয়ে হেডলাইন করেছে। কারাগারে গত ৩১ মার্চ থেকে অনশন করেন নাভালনি। পিঠে তীব্র ব্যথা ও পায়ের অসাড়তার জন্য সঠিক চিকিৎসার দাবিতে তিনি এ অনশন শুরু করেন।

কয়েকদিন আগে নাভালনির চিকিৎসকেরা বলেন, তিনি যেকোনো সময় হৃদরোগে আক্রান্ত হতে পারেন। কিংবা তার কিডনি অকার্যকর হয়ে যেতে পারে। এতে করে যেকোনো সময় মারা যেতে পারেন তিনি।

ডাক্তারদের এমন সতর্কতার পর আন্তর্জাতিক চাপের মুখে কারাকর্তৃপক্ষ তাকে একটি হাসপাতালে নেয়। এরপর অনশন ভাঙেন নাভালনি।

রাশিয়ার আদালত নাভালনির উপস্থিতির একটি ছবি প্রকাশ করেছে। এতে তাকে টাক মাথা এবং কারাবন্দির জ্যাকেট পরা অবস্থায় দেখা গেছে।

ভার্চুয়ালি আদালতে যুক্ত হয়ে নাভালনি বলেন, আমি একজন ভয়ঙ্কর কঙ্কাল। চলতি মাসে তিনি সাত কেজি ওজন হারিয়েছেন বলেও জানান।

প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন রাশিয়ার জনগণকে দাসে পরিণত করেছে বলেও মন্তব্য করেন নাভালনি। পুতিনকে তিনি ‘উলঙ্গ রাজা’ হিসেবে উল্লেখ করেন আদালতে দেওয়া বক্তব্যে।

উল্লেখ্য, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কট্টর সমালোচক হিসেবে পরিচিত নাভালনি। অর্থ আত্মসাতের পুরোনো মামলায় গত ফেব্রুয়ারি মাসে নাভালনিকে কারাদণ্ড দেয়া হয়। সূত্র : আলজাজিরা

টিএস

RTV Drama
RTVPLUS