Mir cement
logo
  • ঢাকা সোমবার, ১৭ মে ২০২১, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

ছেলের মৃত্যুর শোকে মায়েরও মৃত্যু, একসঙ্গে সৎকার

Lynched SHO’s mom dies of ‘shock’, cremated together
সংগৃহীত

চুরির তদন্ত করতে সীমান্ত লাগোয়া পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে গিয়েছিলেন ছেলে। সেখানে তাকে পিটিয়ে হত্যা করে দুষ্কৃতীরা। ছেলের মৃত্যুর আঘাত সহ্য করতে পারলেন না মা। তাই ছেলের মৃত্যুর একদিন পর তিনিও মারা গেলেন। পরে মা-ছেলের একসঙ্গে সৎকার করা হয়। এমন হৃদয় বিদারক ঘটনা ঘটেছে বিহারের কিসানগঞ্জের অভয়রাম চাকলায়।

একটি মোটরসাইকেল চুরির তদন্তে বিহার-পশ্চিমবঙ্গ সীমানায় উত্তর দিনাজপুর জেলার গোয়ালপোখরের পাঞ্জিপাড়ায় গিয়েছিলেন ৫০ বছর বয়সী অশ্বিনী কুমার। বিহারের কিসানগঞ্জ থানার ওসি অশ্বিনীর সঙ্গে সেখানকার সাতজন পুলিশও ছিল।

জানা গেছে, পাঞ্জিপাড়ায় ওই মামলায় অভিযুক্তসহ একদল দুষ্কৃতী তাকে পিটিয়ে খুন করেছে। পাঞ্জিপাড়া পুলিশ পরে অশ্বিনীকে উদ্ধার করে ইসলামপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। তবে সেখানকার চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

অশ্বিনী কুমারের ভাই প্রবীণ কুমার জানান, ভাইয়ের মৃত্যুর খবর পেয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হন তার মা ৭০ বছরের পূর্ণিমা দেবী। রোববার ভোরে তার মৃত্যু হয়। পরে অশ্বিনী কুমার ও তার মায়ের অন্ত্যেষ্টির সময়ে ওই পুলিশ অফিসারের মৃত্যুর প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখান অভয়রাম চাকলার বাসিন্দারা।

RTV Drama
RTVPLUS