logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ৩ বৈশাখ ১৪২৮

হঠাৎ জেগে উঠলো ব্রেন ডেড কিশোর

british teenager starts breathing after being declared brain dead
সংগৃহীত

ডাক্তাররা ব্রেন ডেড ঘোষণা করে দিয়েছিলেন। অঙ্গদানেরও সিদ্ধান্ত হয়ে গিয়েছিল। ছেলে যে আর ঘরে ফিরবে না সেই বাস্তবতাও মেনে নিয়েছিল পরিবার। কিন্তু সম্ভবত সব শেষ হয়ে যাওয়ার পরও মিরাকল ঘটে। আর সেটা শুধু সিনেমায় নয়, বাস্তবেও।

গাড়ির ধাক্কায় গুরুতর আহত হয়েছিল ইংল্যান্ডের স্ট্যাফোর্ডশায়ারের বাসিন্দা ১৮ বছরের লুইস রবার্টস। স্বাভাবিকভাবে নিঃশ্বাস নেয়ার ক্ষমতাও হারিয়েছিল লুইস। শেষপর্যন্ত তাকে ব্রেন ডেড ঘোষণা করে ডাক্তাররা। এরপর লুইসের অঙ্গদানের প্রস্তুতি শুরু হয়। কিন্তু ডাক্তারদের অবাক করে দিয়ে ফের স্বাভাবিকভাবে নিঃশ্বাস নিতে শুরু করে লুইস। এমনকি চোখ মেলেও তাকিয়েছে লুইস।

গত ১৩ মার্চ সড়ক দুর্ঘটনায় মাথায় গুরুতর আঘাত পায় লুইস। ডেইল মেইল জানিয়েছে, লুইসকে আকাশপথে রয়েল স্টোকস ইউনিভার্সিটি হসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু চারদিন পর ডাক্তাররা লুইসের পরিবারকে জানায়, সে ব্রেন ডেড। লুইসকে চিরবিদায় জানাতে পরিবারের সদস্যদের মানসিক প্রস্তুতিও নিতে বলা হয়।

এরপর ডাক্তারদের পরামর্শ মেনে লুইসের অঙ্গ সাতজনকে দান করার সিদ্ধান্ত নেয় তার পরিবার। কিন্তু অঙ্গদানের কয়েক ঘণ্টা আগেই নিজে থেকে নিঃশ্বাস নিতে শুরু করে লুইস। এমন অবিশ্বাস্য ঘটনা লুইস সুস্থ হয়ে উঠবে বলে আশাবাদী হয়ে উঠেছে লুইসের পরিবার।

RTV Drama
RTVPLUS