logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ৪ বৈশাখ ১৪২৮

দেশে ৫০ বছরের মধ্যে ভয়াবহ বন্যা, তার মধ্যেই বিয়ে সারলেন তারা

Terrible flood in the country in 50 years, couple got married, rtvonline
সংগৃহীত

প্রবল বৃষ্টিতে অস্ট্রেলিয়ার পূর্ব উপকূলীয় এলাকাগুলোতে ৫০ বছরের মধ্যে ভয়াবহ বন্যা দেখা দিয়েছে। কিন্তু এই বন্যার মধ্যেই বিয়ে করেছেন এক জুটি। নিজের হবু স্বামীকে কথা দিয়েছিলেন যে, নির্ধারিত সময়েই বিয়ের অনুষ্ঠানে পৌঁছে যাবেন তিনি। কিন্তু শনিবার সকালে কেট ফদারিংহাম নামের ওই কনে ঘুম থেকে উঠে দেখেন বন্যার পানিতে তাদের এলাকার সব বাড়ি তলিয়ে গেছে।

কিছুক্ষণের মধ্যেই কেট বুঝতে পারেন যে বন্যার পানি পাড়ি দিয়ে সময়মতো অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছানো অসম্ভব! তখন খুব খারাপ লাগছিল কেটের। কিন্তু হাল ছাড়েননি তিনি। এমন পরিস্থিতিতে টুইটারের সাহায্য দেন পেশায় সাংবাদিক কেট। তিনি বলেন, আজ আমার বিয়ে। কিন্তু আমরা বন্যার্ত। উইংহাম পৌঁছাতে আমাদের সাহায্য দরকার। কেউ সাহায্য করতে ইচ্ছুক থাকলে জানান?

কেট বলেন, আমার সঙ্গী চায়নি যে আমি নৌকায় উঠি। কারণ আমি অন্তসত্ত্বা। এটা হাস্যকরভাবে দুশ্চিন্তার বিষয়। যদিও শেষপর্যন্ত হতাশ হতে হয়নি কেটের। তাকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয় স্থানীয় একটি টেলিভিশন চ্যানেল। তাকে বিয়ের অনুষ্ঠানে পৌঁছে দিতে তারা হেলিকপ্টার পাঠায়। সেটিতে চড়ে বিয়ের অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছান কেট।

কিন্তু তখনও ঝামেলা শেষ হয়নি। বন্যার কারণে তার বিয়েতে খাবার সরবরাহকারী, মেকআপ আর্টিস্ট, সঙ্গীতশিল্পী- একেকজন একেক জায়গায় আটকা পড়ে। এসময় আরেকটি বিয়েতে যেতে না পারা একটি খাবার সরবহারকারী প্রতিষ্ঠান কেটের বিয়েতে খাবার দিতে রাজি হয়। আর অনুষ্ঠানের অতিথিরা নিজেরাই সাজগোজ করে নেন।

পরে চার্চে গিয়ে বিয়ে দুটি কেট এবং তার পার্টনার। পরে টুইটে কেট লিখেন, আমি চার্চে পৌঁছাই এবং আমার ভালোবাসাকে বিয়ে করি। এসময় বন্যার পানিতে তলিয়ে থাকা একটি রাস্তার ওপর তার স্বামীর সঙ্গে চুম্বনরত একটি ছবি পোস্ট করেন কেট। সেই পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়।

RTV Drama
RTVPLUS