logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ৪ বৈশাখ ১৪২৮

রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে যা বললেন মিয়ানমার সেনাপ্রধান

জেনারেল অং লাইং

সেনা অভ্যুত্থানে মিয়ানমারের ক্ষমতা দখলের পর টেলিভিশনের দেয়া প্রথম ভাষণে দেশটির সেনাপ্রধান সিনিয়র জেনারেল মিন অং লাইং বলেছেন, তার সরকার মিয়ানমারে চলমান বিদেশনীতিতে কোন পরিবর্তন আনবে না। এমন কি রোহিঙ্গাদের ফেরত নেবার ব্যাপারে যে চুক্তি হয়েছে তাতেও কোনও প্রভাব পড়বে না।

সোমবার দেয়া ভাষণে তিনি 'রোহিঙ্গা' শব্দটি উল্লেখ করেননি। রোহিঙ্গাদের গৃহহীন উল্লেখ করে বলেন, বাংলাদেশের সঙ্গে যে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি অনুযায়ী হয়েছে সেটা চলতে থাকবে।

ভাষণের পুরো কপি ছাপা হয়েছে দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম দ্য গ্লোবাল নিউ লাইট অব মিয়ানমারে।

বিবিসি’র খবরে বলা হয়, ভাষণের বেশিরভাগ জুড়েই নির্বাচিত সরকারকে উৎখাত করার পক্ষে সাফাই দিয়েছেন জেনারেল অং লাইং।

রোহিঙ্গা পুনর্বাসন ইস্যুতে তিনি বলেন, মিয়ানমারের অভ্যন্তরে অস্থায়ী শিবিরে যেসব বাস্তুচ্যুত লোকজন রয়েছে তাদের পুনর্বাসনের কার্যক্রমও অব্যাহত থাকবে।

বাংলাদেশের সঙ্গে চুক্তি আলোচনার মাধ্যমে বাস্তবায়ন করা হবে। তবে তিনি বলেছেন যদি তা দেশের স্বার্থের কোন ক্ষতি না করে। তিনি বলেন, বাস্তুচ্যুত ব্যক্তিদের মধ্যে যারা গ্রহণযোগ্য, ১৯৮২ সালের নাগরিকত্ব অনুযায়ী তাদের ফেরার অনুমোদন দেয়া হবে।

মিন অং লাইং বলেন, গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত রাখার জন্য ২০০৮ সালের সেনা সংবিধান অনুযায়ী তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শিগগিরই নতুন নির্বাচনের আয়োজন করে বিজয়ী দলের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করা হবে।

এদিকে সামরিক অভ্যুত্থান ও নির্বাচিত নেতা অং সান সু চিকে গ্রেপ্তারের বিরুদ্ধে ক্রমবর্ধমান বিক্ষোভের চাপে হুঁশিয়ারি জারি করেছে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। সোমবার মিয়ানমার পুলিশের পক্ষ থেকে বিক্ষোভকারীদের সতর্ক করে বলা হয়, চলে যাও। এ ঘোষণার কিছুক্ষণ আগে বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার ইঙ্গিত দেয় রাষ্ট্রীয় সম্প্রচার মাধ্যম।

এমকে

RTV Drama
RTVPLUS