logo
  • ঢাকা সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৭

এশিয়ার ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ মাদক সম্রাট গ্রেপ্তার

এশিয়ার ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ মাদক সম্রাট গ্রেপ্তার
ছবি: সংগৃহীত

নেদারল্যান্ডসের পুলিশ দাবি করেছে বিশ্বের বড় মাদক পাচারকারী দলগুলোর একটির কথিত প্রধানকে আটক করেছে তারা। কথিত ওই প্রধানের নাম চি লপ। এর আগে তার বিরুদ্ধে অস্ট্রেলিয়া গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছিল।

চীনে জন্ম নেয়া এই কানাডার নাগরিককে ‘দ্য কোম্পানি’ নামক একটি মাদক সিন্ডিকেটের প্রধান হিসেবে দাবি করা হচ্ছে। এই কোম্পানিটি পুরো এশিয়াজুড়ে সাত হাজার কোটি মার্কিন ডলারের অবৈধ মাদকের বাজার পরিচালনা করে। বিশ্বের শীর্ষ এই মাদক ব্যবসায়ীকে আমস্টারডামের শিপোল বিমানবন্দর থেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। তাকে প্রত্যাবর্তনের জন্য এখন আবেদন করবে অস্ট্রেলিয়া।

দেশটির পুলিশ বলছে, ৫৬ বছর বয়সী এই ব্যক্তি দেশে ঢোকা অবৈধ মাদকের প্রায় ৭০ ভাগ নিয়ন্ত্রণ করে। এটি ‘স্যাম গোর সিন্ডিকেট’ নামেও বেশ পরিচিত। সে চি লপকে মেক্সিকোর কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী ‘এল চাপো’ গুজমানের সঙ্গে তুলনা করা হয়।

শুক্রবার গ্রেপ্তার করা হয় সে চি লপকে। এর আগে প্রায় ১০ বছর ধেরে তার গতিবিধির ওপর অনুসন্ধান চালাচ্ছিল অস্ট্রেলিয়ার পুলিশ। তিনি কানাডা যাওয়ার জন্য একটি ফ্লাইট ধরার সময় গ্রেপ্তার হয়।

এর আগে ২০১৯ সালে সংবাদ সংস্থা রয়টার্স সে চি লপের ওপর একটি বিশেষ অনুসন্ধানী প্রতিবেদন তুলে ধরে। প্রতিবেদনে সে চি লপকে এশিয়ার ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ ব্যক্তি হিসেবে তুলে ধরা হয়।

রয়টার্সের ওই প্রতিবেদনের জের ধরে জাতিসংঘের তথ্যের বরাত বলা হয়, কেবল মেথঅ্যামফেটামিন বিক্রি করে ২০১৮ সালে তাদের আয় হয়েছিল ৭০০ কোটি মার্কিন ডলার। তাকে ধরার জন্য অস্ট্রেলিয়া পুলিশের নেতৃত্বাধীন ‘অপারেশন কুঙ্গুর’ নামের পরিচালিত অভিযানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রায় ২০ সংস্থা কাজ করছে। তিনি ১৯৯০ এর দশকে যুক্তরাষ্ট্রে মাদক চোরাচালানের অভিযোগে দীর্ঘ ৯ বছর কারাগারে ছিলেন। সূত্র : বিবিসি

এসআর/এসএস

RTV Drama
RTVPLUS