logo
  • ঢাকা সোমবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২১, ১১ মাঘ ১৪২৭

ট্রাম্পকে অভিশংসনের প্রস্তুতি চলছে যুক্তরাষ্ট্রে

The United States is preparing to impeach Trump
যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোলান্ড ট্রাম্প
যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ইমপিচমেন্ট করার প্রস্তুতি চলছে। ট্রাম্পের সমর্থকরা গত সপ্তাহে যেভাবে সহিংসতা চালিয়েছে এবং দেশটির গণতন্ত্রের প্রতীক হিসেবে পরিচিত ক্যাপিটাল হিলের ভেতর যেভাবে তাণ্ডব চালানো হয়েছে, তাতে ট্রাম্পকে অভিশংসনের দাবি উঠেছে। খবর বিবিসি ও আনন্দবাজার পত্রিকার।

আগামীকাল মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) এ নিয়ে ভোট হতে পারে বলে জানিয়েছেন হাউজ অব রিপ্রেজেনটিভস-এর হুইপ জেমস ক্লাইবার্ন। আগামী ২০ জানুয়ারি ট্রাম্পের ক্ষমতার শেষ দিন। তারা ট্রাম্পের বিরুদ্ধে উন্মত্ত জনতাকে ‘অভ্যুত্থানে প্ররোচনা’ দেওয়ার অভিযোগ আনারও পরিকল্পনা আনছেন।

অভিশংসন প্রক্রিয়া পরিকল্পনা মোতাবেক এগোলে ট্রাম্প হবেন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে দুইবার অভিশংসন হওয়া একমাত্র প্রেসিডেন্ট। এজন্য ট্রাম্পকে অভিশংসন অভিযোগ হাউজে ভোটের মাধ্যমে পাস করতে হবে। তারপর সিনেটে যাবে বিষয়টি এবং সেখানে প্রেসিডেন্টকে অপসারণ করার জন্য প্রয়োজন হবে দুই তৃতীয়াংশ ভোট। কেবলমাত্র ডেমোক্র্যাট নয় এমনকি সেদিন রিপাবলিকানদের অনেকেই তার বিরুদ্ধে সমর্থকদের উস্কে দেওয়ার অভিযোগ করছেন।

রিপাবলিকান সেনেটর প্যাট টুমিও ট্রাম্পের পদত্যাগের দাবি জানিয়ে বলেন, ডোনাল্ড ট্রাম্প যদি পদত্যাগ করে এখন বিদায় নেন তাহলে এটাই বোধয় দেশের জন্য সবচেয়ে ভালো হবে। কিন্তু এটা হয়তো হবে না, তা জানি আমি। তবে এটা হলেই ভালো হবে।

এর আগে ট্রাম্পের পদত্যাগের বিষয়ে প্রথম দাবি জানান আলাস্কার রিপাবলিকান সিনেটর লিসা মারকাউস্কি। এছাড়াও নেব্রাস্কার রিপাবলিকান সিনেটর বেন স্যাসেও বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের অভিশংসন নিয়ে কথা বলেন। অন্য এক রিপাবলিকান, ক্যালিফোর্নিয়ার সাবেক গভর্নর আর্নল্ড সোয়ার্জিনেগার ‘জঘন্য প্রেসিডেন্ট’ হিসেবে উল্লেখ করেন ট্রাম্পকে। কিন্তু রিপাবলিকানদের কেউ ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ভোট দেবেন কিনা সে বিষয়ে স্পষ্ট কিছু জানাননি।

ট্রাম্প সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে নিষিদ্ধ হওয়ার পর থেকে প্রকাশ্যে আর কোনো মন্তব্য করেননি। তবে রোববার হোয়াইট হাউজ থেকে জানানো হয়, ডোনাল্ড ট্রাম্প টেক্সাসে যাবেন এবং সেখানে মেক্সিকোর সঙ্গে সীমান্তে যে দেওয়াল হচ্ছে তার কাজ পরিদর্শন করবেন। ট্রাম্প প্রশাসন কি কাজ করতে চান তা তুলে ধরতে চান বলেও জানানো হয়েছে।এসআর/পি

RTV Drama
RTVPLUS