logo
  • ঢাকা সোমবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২১, ১১ মাঘ ১৪২৭

ট্রাম্পকে আর ক্ষমতায় দেখতে চায় না ডেমোক্রেটরা

Top Democrats seek Trump’s removal after Capitol Hill assault
আল জাজিরা থেকে নেয়া
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে অপসারণ করতে তোড়জোড় শুরু করেছে ডেমোক্রেটিক নেতারা। যদিও আর মাত্র দুই সপ্তাহের কম সময় ক্ষমতায় থাকবেন ট্রাম্প। তবে বুধবার দেশটির পার্লামেন্ট ভবন ক্যাপিটল হিলে ট্রাম্প সমর্থকদের তাণ্ডবের পর শেষ সময়েও তাকে সরাতে চাইছে ডেমোক্রেটরা।

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে দেশটিতে ‘সশস্ত্র বিদ্রোহে’ উস্কানি দেয়ার সরাসরি অভিযোগ এনেছেন মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ও ডেমোক্রেট নেত্রী ন্যান্সি পেলোসি। বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে পেলোসি বলেন, এই প্রেসিডেন্ট আমাদের জাতির উপর এক অবর্ণনীয় আক্রমণ করেছেন।

এর আগে ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সের সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেন পেলোসি ও সিনেটে ডেমোক্রেটিক নেতা চাক শুমার। সংবিধানের ২৫তম সংশোধনীর মাধ্যমে তারা ভাইস প্রেসিডেন্টকে তাৎক্ষণিকভাবে ট্রাম্পের স্থলাভিষিক্ত হওয়ার আহ্বান জানান।

যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানের ২৫তম সংশোধনীতে বলা হয়েছে, যদি প্রেসিডেন্ট কোনও কারণে তার দায়িত্ব পালনে অসমর্থ হন তাহলে তার স্থলাভিষিক্ত হবেন ভাইস প্রেসিডেন্ট। তবে ডেমোক্রেট নেতার ফোনকল ধরেননি পেন্স।

বুধবার ক্যাপিটল হিলের হামলার পর থেকে ঘুমাননি দাবি করে পেলোসি বলেন, যদি ভাইস প্রেসিডেন্ট ও মন্ত্রিসভা কোনও ভূমিকা না নেয়, তাহলে কংগ্রেস অভিশংসনের প্রস্তুতি শুরু করতে পারে। বুধবার রাষ্ট্রদ্রোহে উস্কানি দেয়ার পর তাকে অবশ্যই অপসারণ করতে হবে বলেও জানান তিনি।

এদিকে মার্কিন গণমাধ্যমগুলো বলছে, ডেমোক্রেটরা সংবিধানের ২৫তম সংশোধনী প্রয়োগ করলে চাইলেও পেন্স এটির বিরোধিতা করেছেন। এর আগে ক্ষমতার অপব্যবহারের ঘটনায় ২০১৯ সালে ট্রাম্পকে অভিশংসিত করেছিল প্রতিনিধি পরিষদ। যদিও সিনেটে গিয়ে তা প্রত্যাখ্যাত হয়।

কিন্তু পার্লামেন্টে তাণ্ডবের পর কংগ্রেসের অনেক সদস্যই ট্রাম্পের পদত্যাগের দাবি করেছেন। কেউ কেউ আবার তার অভিশংসনের দাবিও তুলেছেন। এরই মধ্যে ট্রাম্প প্রশাসনের দুই মন্ত্রীসহ হাফ ডজনের বেশি কর্মকর্তা পদত্যাগ করেছেন।

RTV Drama
RTVPLUS