logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ২২ জানুয়ারি ২০২১, ৮ মাঘ ১৪২৭

যার হাত ধরে ভারত পেল ব্যালিস্টিক মিসাইল

In whose hands India got the ballistic missile
শশীকলা  সিনহা।। ফাইল ছবি
ভারতের কোনো ‘সুপারহিরো’ কিংবা সুপারস্টার নন তিনি। যুদ্ধের ময়দানে হাজার হাজার যুবকের কথা সাধারণত সবাই শুনে থাকি। কিন্তু মহীয়সী এই মহিলা ভারতের ব্যালিস্টিক মিসাইল তৈরির গল্পের পেছনের প্রধান। ‘বিএমডি’ বলেই পরিচিত তিনি।

তার নাম শশীকলা  সিনহা। মহীয়সী এই নারী ছোটবেলা থেকেই পড়াশোনায় অনেক ভালো ছিলেন। অন্যান্য শিক্ষার্থীদের থেকে তুলনামূলকভাবে এগিয়ে ছিলেন শশীকলা। শিক্ষাজীবনে তাকে তার বাবা বলেছিলেন, বাকিরা মুখস্থ করে কিন্তু তোমাকে অঙ্কটা বুঝতে হবে। বাবার এ কথাই মেনে চলতেন মেয়ে শশীকলা।

‘ডিআরডিও’ চাকরি পাওয়ার পর কয়েক বছর তা ছেড়ে দিয়ে আইআইটি পড়তে যান খড়গপুরে। এরপর ‘সোসাইটি অব মাইক্রোওয়াভ ইঞ্জিনিয়ারিং’-এ কাজ শুরু করেন। কিছুদিন পর সন্তান জন্ম নেওয়ায় সেই কাজও ছাড়তে হয় তাকে। ১৯৮৯ সালে প্রথম কন্যাসন্তান পবিত্র’র জন্ম হয়। শশীকলার বাবা ছিলেন এক আর্মি ইঞ্জিনিয়ার এবং তার স্বামী নেভিতে কর্মরত ছিলেন। এক দুর্ঘটনায় স্বামী না ফেরার দেশে চলে যান। দুই মেয়েকে নিয়ে একা হয়ে পড়েন শশীকলা। পরে আবার যাত্রা শুরু করেন ‘ডিআরডিও’-এর সঙ্গে। রিসার্চ সেন্টার ইমারতে কাজ শুরু করেন তিনি। ল্যাবটিতেই গবেষণা হয় মিসাইল সিস্টেম, গাইডেড ওয়েপন বিষয়ে। তার ব্যালিস্টিক মিসাইল নিয়ে কাজ শুরুর সময় দেশটি তখন মিসাইল আমদানিতে ব্যস্ত। কারও সহায়তা পাননি। অ্যাডভান্স কোডিং ও প্রোগ্রামিং করে অসম্ভবকে সম্ভব করার জন্য উঠেপড়ে লাগেন তিনি। প্রবল পরিশ্রম করতে থাকেন। ২০০৭ সালে লাভ করেন ‘অগ্নি অ্যাওয়ার্ড’।

২০১২ সালে ভারতের ব্যালিস্টিক মিসাইল ডিফেন্স প্রজেক্টের ডিরেক্টর হন শশীকলা সিনহা। আর তার হাত ধরেই ভারত আজ জায়গা করে নিয়েছে বিশ্বের নিজস্ব ব্যালিস্টিক মিসাইল ডিফেন্স দেশগুলোর তালিকায়।

এসআর/কেএফ

RTV Drama
RTVPLUS