logo
  • ঢাকা সোমবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২১, ১১ মাঘ ১৪২৭

সাত বছর বয়সে ফাইদের ওজন ৭ কেজি

সাত বছর বয়সে ফাইদের ওজন ৭ কেজি
ছবি: সংগৃহীত
শিশু ফাইদ শামিম। সাত বছর বয়সে তার ওজন মাত্র ৭ কেজি। ইয়েমেনের রাজধানী সানায় একটি হাসপাতালে বর্তমানে চিকিৎসা চলছে তার। এই অল্প বয়সেই সে অপুষ্টির শিকার এবং পঙ্গু।

আল সাবিন হাসপাতালের অপুষ্টি ওয়ার্ডে চিকিৎসা চলছে ফাইদের। তার চিকিৎসক রাগেহ মোহাম্মদ জানিয়েছেন, ফাইদকে মুমূর্ষু অবস্থায় আনা হয়েছিল হাসপাতালে। সৃষ্টিকর্তাকে অসংখ্য ধন্যবাদ যে তার প্রয়োজনীয় সকল কিছু আমরা করতে সক্ষম হয়েছি। বর্তমানে তার শারীরিক পরিস্থিতি ভালো। সে সেরিব্রাল পালসি ও অপুষ্টিতে ভুগছে।

সানা থেকে ১৭০ কিলোমিটার উত্তরে আল জাওয়াফ এলাকায় ফাইদের বাড়ি। সেখান থেকে তার পরিবার হাসপাতালে নিয়ে এসেছে ছেলেকে। হাসপাতালে আসতে তাদের কয়েকটি চেকপোস্ট ও ভাঙাচোরা রাস্তা অতিক্রম করতে হয়েছে। পরিবারের কোনও সামর্থ্য ছিল না ফাইদের চিকিৎসা চালানোর মতো। চিকিৎসার জন্য অনুদানের ওপর নির্ভর করেছে তারা। 

ইয়েমেনের চিকিৎসক মোহাম্মদ জানিয়েছেন, দেশটিতে অপুষ্টির হার বাড়ছে। ছেলের চিকিৎসার জন্য দরিদ্র পরিবারটিকে অপরিচিত বা আন্তর্জাতিক সহায়তার দ্বারস্থ হতে হয়েছে। দেশটিতে আনুষ্ঠানিকভাবে কখনো দুর্ভিক্ষ ঘোষণার কথা শোনা যায়নি। দীর্ঘ ছয় বছরের যুদ্ধে ইয়েমেনের ৮০ ভাগ মানুষই ত্রাণের ওপর নির্ভরশীল হয়েছে। 

জাতিসংঘের ভাষ্যমতে দেশটিতে বিশ্বের সবচেয়ে বড় মানবিক সংকট চলছে। ২০১৮ সালের শেষ দিকে দেশটির দুর্ভিক্ষ নিয়ে সতর্ক বার্তা দেয়া হয়। ২০২০ সালে করোনার জন্য বিভিন্ন বিধিনিষেধ, রেমিট্যান্স কমা, পঙ্গপালের হামলা, বন্যা ও অপর্যাপ্ত তহবিলের জন্য ইয়েমেনের পরিস্থিতি খুবই খারাপ হয়েছে। দেশটিতে ২০১৫ থেকে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের সঙ্গে ইরান সমর্থিত হুতিদের যুদ্ধ চলে এবং এতে এক লাখের বেশি মানুষের প্রাণহানি হয়। সূত্র: রয়টার্স

এসআর/এসএস

RTV Drama
RTVPLUS