logo
  • ঢাকা রোববার, ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ৩ মাঘ ১৪২৭

প্রবাসী বাংলাদেশিদের ‘ফুড শেয়ারিং’ প্রজেক্ট অস্ট্রেলিয়ায় আলোচনায়

Members of the 'Food Sharing' project
‘ফুড শেয়ারিং’ প্রজেক্টের সদস্যরা
অস্ট্রেলিয়ায় করোনাকালীন সংকটে প্রবাসী বাংলাদেশীরা বিভিন্নভাবে নিজ দেশে থেকে আসা প্রবাসীদের সহায়তায় ঐক্যবদ্ধভাবে মানবতার সেবায় যুক্ত হন। প্রবাসীদের অনেকগুলো সফল মানবিক কাজের মধ্যে অস্ট্রেলিয়াসহ বাংলাদেশেও আলোড়ন তোলে সিডনির প্রবাসীদের ‘ফুড শেয়ারিং’ প্রজেক্টটি। 

এপ্রিলে শুরু হয়ে মে মাসের শেষ, টানা ৫০ দিন পর্যন্ত একদল তরুণ-তরুণী আব্দুল্লাহ আল নোমান শামীমের তত্বাবধায়নে এই যুগান্তকারী প্রজেক্টটি সফল করে তোলেন। এই প্রজেক্টে রেডিমেড খাবার তৈরি করে ৫০ দিন পর্যন্ত চাকুরিহারা ছাত্রছাত্রীদের সরাসরি বিতরণ করা হয়। উপকৃত হন সিডনিতে পড়তে আসা উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ছাত্রছাত্রীরা। 

এই অভূতপূর্ব কাজটি অস্ট্রেলিয়ার মুল ধারার রাজনীতিবিদ ও সমাজকর্মীদের নজর কাড়তে সক্ষম হয়।  ইস্ট হিলস এলাকার সরকার দলীয় এমপি লিন্ডসি ওয়েন্ডি পুরো ব্যাপারটি নিউ সাউথ ওয়েলস পার্লামেন্টে তোলেন এবং প্রাতিষ্ঠানিকভাবে এই প্রজেক্টের সবার নাম উচ্চারণ করে পার্লামেন্টে ধন্যবাদ প্রস্তাব করেন ও নিজের অনুভূতি প্রকাশ করেন তিনি। এছাড়া লোকাল কাউন্সিলর শাহে জামান টিটো কমিউনিটির এই কাজের জন্য সম্মাননা সুপারিশে বিশেষ ভূমিকা রাখেন।  

অরাজনৈতিক ও সাধারণ প্রবাসীদের ব্যাপক সমর্থন পুষ্ট এই প্রজেক্টে ক্রমাগত কাজ করে সফল করে তুলেছেন আব্দুল্লাহ আল নোমান শামীম, সালমিন সুলতানা তানহা, আলী আশরাফ হিমেল, চমন রহমান, মহীউদ্দীন কাদের, শাহ নেওয়াজ আলো, নাহিয়ান আজমল, ব্যারিস্টার নির্মল্য তালুকদার, মো. কবীর, সৈয়দ রহমান, মিরাজ হোসেইন, কৃষ্ণ দে আকাশ, গৌতম সাহা, শাকিল মল্লিক, ড. সাইফুল ইসলাম, আশরাফুল ইসলাম, বাবুল হাসান বাবু, আব্দুস সামাদ, এস এম আমিনুল ইসলাম রুবেল, আরিফুর রহমান, অপু সারোয়ার, মোঃ সেলিম হোসেইন, ড. লাভলী রহমান, ড. আবুল হাসনাত মিল্টন, জাকির হোসেইন প্রধানিয়া ও সিডনির আপামর প্রবাসীরা। 

সিডনির বাঙালিদের প্রাণকেন্দ্র লাকেম্বার নার্গিস রেস্টুরেন্টটি এই মহতী কাজের জন্য পুরো সময়টি ধরে উৎসর্গ করেন স্বত্বাধিকারী জাকির হোসেইন প্রধানিয়া। ব্র্যান্ডিং বাংলাদেশের সদস্যদের মুল ভূমিকার পাশাপাশি প্রজেক্টটি সার্বজনীন রূপ নেয় ও সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষ এর সাথে যুক্ত হয়ে ঐক্যবদ্ধ ভাবে এতো বড় প্রজেক্টটি সফল করে তোলেন।

জিএ 

RTV Drama
RTVPLUS