Mir cement
logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ৩০ বৈশাখ ১৪২৮

বিনোদন ডেস্ক

  ১৩ এপ্রিল ২০২১, ১৭:১৯
আপডেট : ১৩ এপ্রিল ২০২১, ১৭:২৩

সেই সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি নিয়ে মুখ খুললেন মমতাজ

মমতাজ বেগম।

আমার কাছে বিশ্ববিদ্যালয়টি ভুয়া মনে হয়নি। আর ভুয়া বলে যে বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম আসছে সেটা এ বিশ্ববিদ্যালয় নয়। আমি নিজে বিশ্ববিদ্যালয়ে উপস্থিত হয়ে এটা গ্রহণ করেছি। সেখানে শত শত মানুষ ছিলেন। আমার হাতে এই সম্মাননা তুলে দেন বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান পি ম্যানুয়েল। সেদিন সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেছেন চেন্নাইয়ের সাবেক জেলা জজ থিরু এজে মুরুগানানথাম ও তামিলনাড়ুর আধ্যাত্মিক ধর্মগুরু খলিফা মাস্তান সাহেব। এ বিশ্ববিদ্যালয় ভুয়া এমন কোনো আভাসই মেলেনি। বলছিলেন ফোক সম্রাজ্ঞী খ্যাত গায়িকা মমতাজ বেগম।

ভারতের তামিলনাড়ুর 'গ্লোবাল হিউম্যান পিস ইউনিভার্সিটি' থেকে সংগীতে বিশেষ অবদানের জন্য সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি উপাধি পান মমতাজ বেগম।

গেলো শনিবার ১০ এপ্রিল গায়িকা ও সংসদ সদস্য মমতাজ বেগমকে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি প্রদান করা হয়েছে। মমতাজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে ১২ এপ্রিল ৯টার দিকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়।

কিন্তু বিতর্ক উঠে যে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিগ্রিটি দেয়া হয়েছে সেটির বৈধতা নিয়ে। কেউ কেউ সোশ্যাল মিডিয়ায় দাবি করেন, ভারতে গ্লোবাল হিউম্যান পিস ইউনিভার্সিটি নামে বৈধ কোনো বিশ্ববিদ্যালয় নেই। প্রতিষ্ঠানটি ডক্টরেট ডিগ্রি বিক্রি করে বলেও মন্তব্য করেন কেউ কেউ।

তার পরিপ্রেক্ষিতেই নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা করলেন মমতাজ। গেলো ৩০ বছর বাংলা গানকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরা ও সমাজসেবা ছাড়াও নানামুখী কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত রেখে নিজেকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন মমতাজ। এজন্য বিশেষ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাকে ‘ডক্টর অব মিউজিক’ ডিগ্রি প্রদান করেছে গ্লোবাল হিউম্যান পিস ইউনিভার্সিটি।

এম

RTV Drama
RTVPLUS