itel
logo
  • ঢাকা শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০, ২০ আষাঢ় ১৪২৭

করোনা আপডেট

  •     গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় মৃত্যু ২৯ জন, আক্রান্ত ৩২৮৮ জন, সুস্থ হয়েছেন ২৬৭৩ জন: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

হীরামনির পরিবারের পাশে ইগলু 

আরটিভি নিউজ ডেস্ক
|  ২৭ জুন ২০২০, ১৭:১৩ | আপডেট : ২৭ জুন ২০২০, ১৮:২৩
Igloo next to Hiramani's family rtv
হীরামনির মা ফাতেমা বেগম ও স্বজন

নবম শ্রেণীর ছাত্রী হীরামনি। বাবা ক্যান্সারে আক্রান্ত, মা একাই অসহায় হয়ে সংসারের হাল ধরে আছেন। তাই হীরামনি স্বপ্ন দেখতো একদিন সে নিজেই সংসারের হাল ধরবে। বাবা-মা’র সব কষ্ট দূর করে দিবে। কিন্তু দুর্বৃত্তরা হীরামনি’র স্বপ্ন কে সত্যি হতে দেয়নি। ক্যান্সারে আক্রান্ত বাবাকে নিয়ে মা যখন চিকিৎসার কারণে ঢাকায় তখন বাসায় একা পেয়ে হীরামনিকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করে ফেলে রেখে যায় সন্ত্রাসীরা।
হীরামনিকে হারিয়ে কী অবস্থায় দিনযাপন করছে তার অসুস্থ বাবা, মা? সে প্রশ্নের উত্তর জানতেই গতকাল (২৬ জুন শুক্রবার) রাত ১০টায় ইগলুর ফেসবুক পেজে ইগলু আইসক্রিম আয়োজিত ‘তুমি চাইলেই হাসবে দেশ’ অনুষ্ঠানে হীরামনির বাবা-মাকে নিয়ে হাজির হয়েছিলেন লাভগুরু খ্যাত এহতেশাম। উপস্থিত ছিলেন ইগলুর গ্রুপ সিইও জিএম কামরুল হাসান, সঙ্গীত শিল্পী অনুপমা মুক্তি। 
অনুষ্ঠানের শুরুতেই হীরামনির মা ফাতেমা বেগম নিজের পরিবারের সাথে ঘটে যাওয়া নির্মম ঘটনাটি ব্যক্ত করেন। বাবা-মা’র অনুপস্থিতে একা বাসায় পেয়ে মেয়েকে ধর্ষণ করে ফেলে রেখে যায় সন্ত্রাসীরা। কান্নাজড়িত কণ্ঠে ফাতেমা বেগম বলেন ‘যে মেয়েকে আমি রেখে গেলাম সে মেয়েকে আমি পাইনি, নরপশুরা আমার আদরের মেয়েকে এতো কষ্ট দিয়ে মেরে ফেলল, এতদিন হয়ে গেল আমাকে আমার মেয়েটা মা বলে ডাকে না, বলে না মা আমাকে খাইয়ে দাও।’ তিনি আরও বলেন ‘যারা আমার মেয়েকে কেড়ে নিয়েছে আমি তাদের বিচার চাই। যে নরপশুদের হাতে আমার মেয়েকে হারাতে হলো আমি তাদের বিচার চাই, এমন বিচার চাই যেন আর কোনো মেয়েকে এভাবে মরতে না হয়, আর কোনো মা’র বুক যেন এভাবে খালি না হয়।’
নিজের বক্তব্যে ইগলুর গ্রুপ সিইও জিএম কামরুল হাসান বলেন, ‘আমি বাকরুদ্ধ, আমার কথা বলার কোনো ভাষা নেই, মানুষের মূল্যবোধ আজ কোথায় নেমে গেছে? ১৫ বছর বয়সী একটি মেয়েকে যারা এতো নৃশংসভাবে হত্যা করতে পারে তারা মানুষরূপী পশু।’
তিনি আরও বলেন ‘মাঝে মাঝে এই সমাজের একজন মানুষ হিসেবে আমি লজ্জিত হই যেখানে হীরামনির মতো মেয়েরা বাঁচতে পারে না, যেখানে তাদেরকে হত্যা করা হয়, আমাদের সমাজের প্রতিটি মানুষেরই লজ্জিত হওয়া উচিত, সকলেরই এমন সব অন্যায়ের প্রতিবাদ করা উচিত। এছাড়া তিনি সরকার এবং প্রশাসনের কাছে হীরামনি হত্যার বিচার প্রত্যাশা করেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে দেশের সবচেয়ে মানবিক মানুষ উল্লেখ করে হাতজোড় করে জিএম কামরুল হাসান বলেন ‘স্বজন হারানোর ব্যথা আপনার চেয়ে বেশি আর কেও জানে না, কেও বোঝে না, আপনি চাইলে অবশ্যই বিচার সম্ভব মাননীয় প্রধানমন্ত্রী।’ এসময় ইগলুর গ্রুপ সিইও জিএম কামরুল হাসান নিজের ব্যক্তিগত তহবিল এবং ইগলু কোম্পানির পক্ষ থেকে ফাতেমা বেগম এবং তার পরিবারকে তিন দিনের মধ্যে সাহায্য পৌঁছে দেওয়ার আশ্বাস দেন। 
লাইভে উপস্থিত সঙ্গীত শিল্পী অনুপমা মুক্তি, ইগলুর গ্রুপ সিইও জিএম কামরুল হাসান এবং লাভগুরু এহতেশামের উদ্যোগের প্রশংসা করে তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি যেকোনো প্রয়োজনে সাথে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। 
এছাড়া চাঁদপুরের সোহেল, যিনি প্রতিবেশী দুই ফ্যামিলির সাহায্যের জন্য ফোন করেছিলেন, কয়ড়া উপজেলার জহিরুল তাদের কে ইগলুর পক্ষ থেকে গিফট পৌঁছে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়। 
তুমি চাইলেই হাসবে দেশ’ ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে ইগলু সুবিধা বঞ্চিত মানুষদেরকে দেশের সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করছে। প্রতিদিনের হোম ডেলিভারি অর্ডার থেকে ৫% সহায়তা মানুষের কাছে পৌঁছে দিচ্ছে ইগলু। আর এই অনুষ্ঠানটির সাথে সহযোগী হিসেবে থাকছে যমুনা টিভি। অনুষ্ঠানটি একযোগে লাইভে সম্প্রচারিত হয় প্রতি শুক্রবার এবং মঙ্গলবার রাত ১০টায় ইগলু এবং যমুনা টিভির ফেসবুক পেজ থেকে।
সি/
 

RTVPLUS
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ১৫৯৬৭৯ ৭০৭২১ ১৯৯৭
বিশ্ব ১১১৯০৬৭৮ ৬২৯৭৯১০ ৫২৯১১৩
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • করপোরেট কর্নার এর সর্বশেষ
  • করপোরেট কর্নার এর পাঠক প্রিয়