logo
  • ঢাকা রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশের পরেও এটিএম বুথে টাকা নেই

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০৬ জুন ২০১৯, ১৩:০৬
ফাইল ছবি
বাংলাদেশ ব্যাংক ঈদুল ফিতরের ছুটিতে এটিএম বুথে পর্যাপ্ত টাকা রাখার নির্দেশ দিলেও ঈদের পরদিনই অধিকাংশ ব্যাংকের বুথ থেকে টাকা তোলা যাচ্ছে না বলে গ্রাহকরা অভিযোগ করছেন।

এছাড়া এক ব্যাংকের কার্ড নিয়ে অন্য ব্যাংকের বুথে গিয়েও  কোনো টাকা  তোলা সম্ভব হয়নি। টাকা না পেয়ে গ্রাহকরা দুর্ভোগে পড়েছেন। অনেকে আবার ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন।

ভুক্তভোগী একজন জানান, ঈদের দিন বিকেলে টাকা তুলতে একটি বেসরকারি ব্যাংকের এটিএম বুথে গিয়ে ফেরত আসেন। কাছে নগদ টাকা না থাকায় এক বন্ধুর কাছ থেকে বিকাশে টাকা এনে ছেলের জন্য ওষুধ কিনেছেন।

এটিএম বুথে টাকার সংকট তৈরি হয়েছে ঈদের দিন বিকেল থেকেই।  গুলশান, বনানী, বারিধারা এলাকার কয়েকটি এটিএম বুথে গিয়ে নিরাপত্তাকর্মীদের কাছে টাকা আছে কিনা জানতে চাইলে কার্ড দিয়ে চেক করতে বলেন।

বনানীতে এনসিসি ব্যাংকের এটিএম বুথের নিরাপত্তাকর্মী বুথে যাওয়ার চেষ্টা করলেও তিনি জানিয়ে দেন ঈদের দিন বিকেল থেকে এই বুথে টাকা শেষ হয়ে গেছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ৩১ মে (শুক্রবার) দিনগত রাতে ডাচ-বাংলা ব্যাংকের বাড্ডার একটি এটিএম বুথ থেকে জালিয়াত চক্র টাকা তুলে নেওয়ার পর তার কোনো প্রমাণ না থাকায় ব্যাংকগুলোর মধ্যে আতঙ্ক তৈরি হয়েছে। এ কারণে ঈদের ছুটির সময় এটিএম বুথে পর্যাপ্ত টাকা রাখার নির্দেশ দিলেও অধিকাংশ ব্যাংকের বুথে পর্যাপ্ত টাকা ছিল না।

এদিকে এক ধরনের অঘোষিতভাবেই ওই সময় থেকে বন্ধ রয়েছে ডাচবাংলা ব্যাংকের এটিএম বুথ থেকে টাকা তোলা।

এ বিষয়ে ডাচবাংলা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবুল কাশেম মো. শিরিন সাংবাদিকদের বলেন, ঈদের ছুটিতে এটিএম বুথে পর্যাপ্ত টাকা রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আমরা যখনই কোনো বুথ টাকা সংকটের খবর পাচ্ছি, তখনই গিয়ে টাকা দিয়ে আসছি। তবে বাণিজ্যিক এলাকার দু’একটি বুথে টাকার সংকট হতে পারে। তবে তা ছিলো সাময়িক।

এ বিষয়ে ঢাকা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও এবিবির চেয়ারম্যান সৈয়দ মাহবুবুর রহমান বলেন, জালিয়াত চক্রের কারণে সবাই নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে। তবে বুথে টাকার সংকট থাকার কথা নয়।

এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়