Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২ কার্তিক ১৪২৮

ই-অরেঞ্জের বিজ্ঞাপনে এখনো মাশরাফী! (ভিডিও)

ই-অরেঞ্জের ইউটিউব চ্যানেল থেকে এখনো সরেনি মাশরাফির বিজ্ঞাপন!

বিতর্কিত ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম ই-অরেঞ্জের ইউটিউব চ্যানেলে এখন আছে মাশরাফীর বিজ্ঞাপন। এর আগে চুক্তি শেষ হওয়ার পর বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ও সংসদ সদস্য মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার ছবি ও বিজ্ঞাপন ব্যবহারে তারা দুঃখ প্রকাশও করেন।

আজ বুধবার (১৮ আগস্ট) ই-অরেঞ্জের ইউটিউব চ্যানেলে মাশরাফির চারটি বিজ্ঞাপন দেখা যায়। এর আগে মাশরাফী জানান, ই-অরেঞ্জের সঙ্গে তার চুক্তি ছিল। সেটা শেষ হয়েছে। তিনি ভুক্তভোগীদের সঙ্গে শেষ পর্যন্ত আছেন বলেও জানান।

বিষয়টি নিয়ে কথা বললে মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা বুধবার দুপুরে আরটিভি নিউজকে বলেন, আসলে এ বিষয়ে আমি কিছুই জানি না। ব্যাপারটি আমি দেখছি।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে ই-অরেঞ্জের সিইও আমান উল্লাহ বুধবার দুপুরে আরটিভি নিউজকে বলেন, মাশরাফী বিন মোর্ত্তজাকে নিয়ে নির্মিত বিজ্ঞাপনগুলো ইউটিউবসহ সব জায়গা থেকে আমরা খুব দ্রুতই সরিয়ে দিব। আমাদের এই সব বিষয়গুলো যারা দেখেন, তারা এখন অফিস করছেন না। তারা জয়েন করলেই ওই ভিডিও, ছবিগুলো সরিয়ে দেয়া হবে।

গত সোমবার (১৮ আগস্ট) প্রতিষ্ঠানটির সামনে ও সাবেক ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর মাশরাফীর বাসার সামনে বিক্ষোভ করেন ই-অরেঞ্জের গ্রাহকরা। তাদের দাবি অনলাইনে অর্ডার দেয়ার পর কয়েক মাস পেরিয়ে গেলেও তারা কোন পণ্য বুঝে পাননি।

সেদিনই ই-অরেঞ্জের ফেসবুক থেকে জানানো হয়, মাশরাফীর সঙ্গে এখন কোনও সম্পর্ক নেই তাদের।

তারা ফেসবুকে লিখেছে, ‘ই-অরেঞ্জ.শপ এর সকল সম্মানিত গ্রাহকদের জানানো যাচ্ছে যে, ই-অরেঞ্জ.শপ এর সাথে পহেলা জুলাই, ২০২১ হতে জনাব মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার সাথে চুক্তি শেষ হয়েছে। তাই আমাদের অফিসিয়াল কোন বিষয়ে তিনি কোনোভাবেই অবগত নয় এবং তিনি অফিসিয়াল ভাবে কোন কিছুই আপডেট দিতে পারবেন না। আমরা দুঃখ প্রকাশ করছি তাদের কাছে যারা পণ্য অর্ডার করেছেন, কিন্তু এখনো পণ্য হাতে পাননি।’

দ্রুত পণ্য দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রতিষ্ঠানটি লিখেছে, ‘আশা করি আমরা দ্রুত এই সমস্যা গুলোর সমাধান খুঁজে বের করবো এবং আপনাদের পণ্য আপনাদের বুঝিয়ে দিতে পারবো। আর যেহেতু জনাব মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা আমাদের সাথে আর চুক্তিবদ্ধ নেই, সেহেতু সবার কাছে অনুরোধ রইল এই বিষয়ে তার সাথে যোগাযোগ না করার জন্য।’

ই-অরেঞ্জ আরও লিখেছে, ১৯ আগস্ট থেকে সকল পণ্য (মোটরসাইকেল বাদে, মোটরসাইকেলের টাকা রিফান্ড হবে ধারাবাহিকভাবে) সরবরাহ শুরু হয়ে যাবে। গ্রাহকদের সাময়িক অসুবিধার জন্যে আমরা আন্তরিক ভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি । ইঅরেঞ্জ.সপ এর প্রতি আস্থা ও বিশ্বাস রাখার জন্যে আপনাদের ধন্যবাদ।

গতকাল প্রতারণা মামলায় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ই-অরেঞ্জের মালিক সোনিয়া মেহজাবিন ও তার স্বামী মাসুকুর রহমানকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। ঢাকা চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবুবকর সিদ্দিকের আদালতে আত্মসমর্পণ করেন তারা। আইনজীবীর মাধ্যমে জামিনের আবেদন করেন। শুনানি শেষে আদালত জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। সোমবার গ্রাহকের ১১০০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়।

এসএস/পি

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS