spark
logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৯ জুলাই ২০২০, ২৫ আষাঢ় ১৪২৭

করোনা আপডেট

  •     গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় মৃত্যু ৪১ জন, আক্রান্ত ৩৩৬০ জন, সুস্থ হয়েছেন ৩৭০৬ জন: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

নদী ভাঙনের আতঙ্কে থাকা মানুষগুলোর মুখে আজ হাসি

স্টাফ রিপোর্টার, ফরিদপুর, আরটিভি নিউজ
|  ০১ জুলাই ২০২০, ১২:০৫ | আপডেট : ০১ জুলাই ২০২০, ১২:৩৩
Arrow protection dam
ছবি সংগৃহীত
ফরিদপুরে পদ্মা ও আড়িয়াল খাঁর তীর সংরক্ষণ কাজ সম্পন্ন হওয়ায় চোখে-মুখে হাসি ফুটেছে ভাঙনের আতঙ্কে থাকা এলাকাবাসীর। দীর্ঘ ৫০ বছরের বেশি সময় ধরে এর দুই পাড়ে প্রতি বছর ভাঙনের শিকার হয়। নিঃস্ব হয় শত শত পরিবার। কিন্তু চলতি বর্ষা মৌসুমে এই প্রথমবারের মতো ভাঙনের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে নদী পাড়ের মানুষগুলো।

ফরিদপুর পানি উন্নয়ন উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সুলতান মাহমুদ জানান, ভাঙনের হাত থেকে স্থানীয়দের রক্ষায় ২০১৮-১৯ অর্থবছরে পদ্মা নদীতে চরভদ্রাসন উপজেলায় প্রায় ২৯২ কোটি টাকা ব্যয়ে ৩.৪ কিলোমিটার তীর সংরক্ষণ বাঁধ ও ১০ কিলোমিটার মিটার ড্রেজিং এবং সদরপুর উপজেলায় ২৯১ কোটি টাকা ব্যয়ে আড়িয়াল খাঁ নদের ৫ দশমিক ৩৮ কিলোমিটার নদী তীর সংরক্ষণ ও ৬.৩ কিলোমিটার নদের ড্রেজিং কাজের অনুমোদন পায়।

তিনি বলেন, ফরিদপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড এই প্রকল্পের তীর সংরক্ষণ ও ড্রেজিয়ের জন্য পদ্মায় ১২ এবং আড়িয়াল খায় ১৭ গ্রুপকে কার্যাদেশ দেয়। ইতোমধ্যে কাজের ৭৫ শতাংশ শেষ করেছে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান।

আর এই কাজ সম্পন্ন হওয়ার মধ্যে দিয়ে গত ৫০ বছর ধরে নদী দুইটি আগ্রাসনে যে ভূ-সম্পদের ক্ষতি সাধন হতো তার থেকে চলতি বর্ষা মৌসুমে রক্ষা পাচ্ছে নদ-নদী পাড়ের মানুষ।

সরকারের এই বড় প্রকল্পের সম্পন্ন হওয়ায় হাসি ফুটেছে কয়েক হাজার মানুষের মুখে। স্থানীয়রা পদ্মা ও আড়িয়ালখাঁর পাড়ে তীর সংরক্ষণ কাজ দেখে আশায় বুক বাঁধছে।  

---------------------------------------------------------------
আরও পড়ুন: সিরাজগঞ্জে জুট মিল বন্ধ ঘোষণার প্রতিবাদে শ্রমিকদের বিক্ষোভ
---------------------------------------------------------------
আড়িয়ালখাঁ নদের চন্দ্রপাড়া এলাকার বিপুল মাতুব্বর বলেন, দীর্ঘ সময় ধরে এই পদ্মা ও আড়িয়ালখাঁ ভাঙন দেখেছি। এখন এই কাজ শেষ হওয়ায় নতুন করে বসত গড়ার স্বপ্ন দেখছি আবার।

সদরপুর উপজেলার দরগা বাজারের বাসিন্দা তারাপদ ঘোষ জানান, তার বাড়ি এই আড়িয়ালখাঁয় তিন বার ভেঙেছে। প্রতিবছর বর্ষা এলেই চিন্তায় থাকতে হতো। কিন্তু এবারই দরগা বাজার এলাকাবাসী নিচিন্তে ঘুমতে পারবে।

একই সুরে কথা বলেন, চরভদ্রাসন উপজেলার হাজিগঞ্জ বাজারে ব্যবসায়ী আবুল কালাম। এই বাজার এ পর্যন্ত চারবার নদীর গর্ভে চলে গেছে। অবশেষে বাজার সংলগ্ন এলাকায় পদ্মায় স্থায়ীবাঁধ হওয়ায় ব্যবসায়ী ভাঙনের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে।  

স্থানীয় এমপি মুজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরী বলেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে এই এলাকার মানুষের দীর্ঘদিনের চোখের পানি মুছে মুখে হাসি ফুটেছে। জানমালের নিরাপত্তার পাশাপাশি আর্থিক স্বচ্ছলতাও ফিরে আসবে। ঘুচবে এই অঞ্চলের মানুষের নদী ভাঙনের আতঙ্ক।
জেবি/পি

RTVPLUS
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ১৭৫৪৯৪ ৮৪৫৪৪ ২২৩৮
বিশ্ব ১২১৮০৮৩২ ৭০৮১৪১০ ৫৫২৩৯৪
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়