logo
  • ঢাকা সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

সৌদি যাওয়া হয়নি গৃহবধূর, প্রতিদিন ধর্ষণ করতো চারজন

মাগুরা প্রতিনিধি
|  ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:২৫ | আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৮:২৬
গণধর্ষণ, মামলা, আটক
মাগুরা সদর উপজেলার আমুরিয়া গ্রামের এক গৃহবধূকে সৌদি আরবে চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ঢাকায় এনে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় শুক্রবার এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে মাগুরা থানা পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃত নজরুল ইসলাম (৩০) মাগুরা সদর উপজেলার আমুরিয়া গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে।

মাগুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুল ইসলাম জানান, গ্রেপ্তার নজরুল ইসলাম এক গৃহবধূকে সৌদি আরবে চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ঢাকার দারুসসালামের একটি বাসায় নিয়ে আটকে রেখে সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণ করে।

---------------------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : টিয়া পাখির জন্য বাবা-ছেলের আত্মহত্যার চেষ্টা
---------------------------------------------------------------------

ওই গৃহবধূর অভিযোগ থেকে জানা যায়, সংসারের অভাবের কারণে অনেকদিন ধরে চাকরির সন্ধান করছিলেন তিনি। এ সুযোগে একই গ্রামের নজরুল ইসলাম তাকে সৌদি আরবে চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে গেল ১৩ আগস্ট মাগুরা থেকে ঢাকা শহরের দারুসসালাম এলাকার একটি বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে মোকারম আলী, আরজু শেখ ও আরও দুজন মিলে পূর্বপরিকল্পিতভাবে তাকে আটকে রেখে পালাক্রমে দীর্ঘদিন ধরে ধর্ষণ করতে থাকে। গেল ১২ সেপ্টেম্বর ঢাকার ওই বাসা থেকে পালিয়ে মাগুরা চলে আসেন গৃহবধূ।

এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে মাগুরা থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পেয়ে পুলিশ শুক্রবার নজরুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করেছে। এ ঘটনায় জড়িত অন্য আসামিদেরকেও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানান ওসি সিরাজুল ইসলাম।

জেবি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়