logo
  • ঢাকা রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬

স্বাদে ও ঐতিহ্যে অনন্য গাইবান্ধার রসমঞ্জুরি

গাইবান্ধা প্রতিনিধি
|  ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১১:১৬ | আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:১৫
গাইবান্ধা রসমঞ্জুরি
গাইবান্ধা জেলার ঐতিহ্যবাহী ও সুস্বাদু মিষ্টির নাম রসমঞ্জুরি। বিশেষ এই মিষ্টির সুনাম রয়েছে দেশ ছাড়িয়ে বিদেশেও। এর স্বাদ গ্রহণ না করলে গাইবান্ধা ভ্রমণই বৃথা বলে মনে করেন অনেকে। অতিথি আপ্যায়ন থেকে শুরু করে সব আনন্দ অনুষ্ঠানই পূর্ণতা পায় রসমঞ্জুরি স্বাদে।

ব্যবসায়িকভাবে ১৯৪০ সালে গাইবান্ধা শহরের মিষ্টি ভাণ্ডারের মালিক রামমোহন দে রসমঞ্জুরি মিষ্টির উৎপাদন শুরু করেন। দশ বছরের মধ্যেই এর সুনাম ও পরিচিতি দেশ-বিদেশে ছড়িয়ে পড়ে।  

গরুর খাঁটি দুধ, চিনি, দুধের ছানা এবং ছোট এলাচির সংমিশ্রণে বানানো হয় এই মিষ্টি। বর্তমানে প্রতিকেজি রসমঞ্জুরি তৈরি করতে উৎপাদন খরচ পড়ে প্রায় ২৮০ টাকা। বাজারে প্রতিকেজি রসমঞ্জুরি বিক্রি হচ্ছে ৩০০ টাকা দামে। রসমঞ্জুরির সুনাম দেশ ছাড়িয়ে বিদেশেও ছড়িয়ে পড়েছে। বিদেশেও অনেকেই রসমঞ্জুরি নিয়ে যাচ্ছেন। এজন্য বিশেষভাবে ফ্রিজিং করে দেওয়া হয় এই মিষ্টি।

গাইবান্ধা শহরের মিষ্টান্ন ভাণ্ডারের ব্যবস্থাপক এস এম রাশেদ আহমেদ জানান, দিন দিন চাহিদা বাড়ায় বিশেষ দিনগুলোতে দুপুরের মধ্যেই শেষ হয়ে যায় রসমঞ্জুরি।

রসমঞ্জুরি গাইবান্ধার ব্রান্ডিং পণ্য হওয়ায় এটি সারাদেশে প্রচার ও প্রসারে কাজ করা হচ্ছে এবং ই-শপে এটির প্রচারণার ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাসক মো. আবদুল মতিন।

তবে আজকাল অধিক লাভের আশায় ভেজাল উপকরণ মিশিয়ে গ্রামগঞ্জে অনেক মিষ্টির দোকানে তৈরি হচ্ছে নিম্নমানের রসমঞ্জুরি। এতে ঐতিহ্যবাহী এই মিষ্টির সুনাম বিঘ্নিত হচ্ছে।

পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়