logo
  • ঢাকা বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬

হিলি বন্দরে দাম বেড়েছে পেঁয়াজের

হিলি প্রতিনিধি
|  ২২ আগস্ট ২০১৯, ১৪:৫৩ | আপডেট : ২২ আগস্ট ২০১৯, ১৪:৫৯
পেঁয়াজ, আমদানি, ভারত
ঈদের ছুটি কাটিয়ে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে  শুরু হয়েছে পণ্য আমদানি-রপ্তানি। দেশের চাহিদার বেশিরভাগ পেঁয়াজ ভারত থেকে আমদানি হয়ে থাকে দ্বিতীয় বৃহত্তম হিলি স্থলবন্দর দিয়ে।

আর এই পেঁয়াজ আমদানির ফলে বন্দরে এলাকাতে গড়ে উঠেছে পেঁয়াজের আড়ত।যেখানে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে পেঁয়াজ কিনতে আসে পাইকারেরা।

সকাল থেকে রাত পর্যন্ত সেখানে জমে উঠে আমদানিকৃত পেঁয়াজ বেচা-কেনা। তবে সম্প্রতি ঈদ ও জাতীয় শোক দিবসের ছুটি কাটিয়ে আমদানি-রপ্তানি শুরুতে ভারত থেকে চাহিদার তুলনায় অনেকটাই কমে গেছে পেঁয়াজের আমদানি। সেইসঙ্গে দফায় দফায় বন্দরের আড়তগুলোতে বেড়েই চলেছে ভারত থেকে আমদানিকৃত পেঁয়াজের দাম।

গেল সোমবার বন্দরে প্রকারভেদে কেজিতে  আট থেকে ১০ টাকা বেড়ে আড়তগুলোতে পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ৩২ থেকে ৩৫ টাকা দরে। সেই পেঁয়াজ আজ বুধবার বন্দরে বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪৫ টাকা কেজি দরে। যা ঈদের আগে আড়তগুলোতে বিক্রি হয়েছে ২২ থেকে ২৫ টাকা দরে। আর হঠাৎ করে দাম বেড়ে যাওয়ায় পেঁয়াজ কিনতে এসে বিপাকে পড়েছেন পাইকারেরা।

হিলি স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশিদ হারুন জানান, আমাদের পেঁয়াজ আমদানি অব্যাহত রয়েছে। তবে চাহিদার তুলনায় কম পেঁয়াজ আমদানি হচ্ছে।আমরা আমদানিকারকরা বিপাকে পড়েছি আমাদের ভারতে অনেক এলসি দেওয়া আছে কিন্তু সেদেশের রপ্তানিকারকরা চাহিদা মোতাবেক পেঁয়াজ দিতে পারছে না। কারণ সে দেশে অতিবন্যার কারণে  পেঁয়াজের আবাদ নষ্ট হয়েছে। যার ফলে সেদেশের পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে।

পেঁয়াজ আমদানিকারক সাইফুল ইসলাম আরটিভি অনলাইনকে জানান, ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে বন্যা ও সেদেশের ট্রাক-লরি ধর্মঘটের কারণে সেখানে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে আর যে কারণে বেশি দামে পেঁয়াজ আমদানি করে বন্দরে বেশি দামে বিক্রি করতে আমাদের। গত সোমবার আমরা যে পেঁয়াজ বন্দরে বিক্রি করেছি ৩০ থেকে ৩৫ টাকা কেজি দরে, আজ বুধবার সেই পেঁয়াজ বিক্রি করছি ৪০ থেকে ৪৫ টাকা কেজি দরে।ভারতে আমাদের বেশি দামে পেঁয়াজ কিনতে হচ্ছে।

পেঁয়াজ কিনতে আসা পাইকার আইয়ুব আলী জানান, আমরা জানি না কি কারণে পেঁয়াজের দাম দফায় দফায় বাড়ছে। তবে আমদানিকারকরা বলছেন ভারতেই নাকি পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। হঠাৎ করে বন্দরে দফায় দফায় পেঁয়াজের দাম বেড়ে যাওয়ায় পেঁয়াজ বেচাকেনা করতে আমাদের সমস্যা হচ্ছে। যে পেঁয়াজগুলো আমরা ঈদের আগে ২২ থেকে ২৫ টাকা কেজি কিনেছি সেই পেঁয়াজ আজ বন্দরে ৪০ থেকে ৪৫ টাকা চাচ্ছে।এতে করে আমাদের পেঁয়াজ কিনতে এসে খুব সমস্যার মুখে পড়তে হচ্ছে।

জেবি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়