logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬

স্প্লিন্টারের যন্ত্রণায় এখনো রাতে ঘুমাতে পারেন না নাজিম উদ্দিন

মো. আল আমিন টিটু, ভৈরব
|  ২১ আগস্ট ২০১৯, ১৭:৫৯ | আপডেট : ২১ আগস্ট ২০১৯, ১৮:১৫
নাজিম উদ্দিন
স্প্লিন্টারের যন্ত্রণায় এখনো রাতে ঘুমাতে পারেন না নাজিম উদ্দিন
দীর্ঘ এক যুগের বেশি সময় পেরিয়ে গেলেও ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় এখনো বাস্তবায়ন হয়নি। ভয়াবহ সেই গ্রেনেড হামলায় আহত ও প্রত্যক্ষদর্শী ভৈরবের নাজিম উদ্দিন। সারা শরীরে অসংখ্য স্প্লিন্টারে অসহ্য যন্ত্রণা নিয়ে এখনো বেচে আছেন তিনি। কিন্তু সেই দিনের সেই দুঃসহ স্মৃতি আজো তাকে তাড়া করে বেড়ায়। 

জানা যায়, ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের সাবেক মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের স্ত্রী  বেগম আইভি রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে ছিলেন ভৈরবের আকবরনগর গ্রামের মফিজ উদ্দিনের ছেলে নাজিম উদ্দিন। 
বিকেলে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাস বিরোধী জনসভায় যোগ দিয়ে ছিলেন। আইভি আপা পানি খাবেন। তাই, পানি কিনতে দোকানের উদ্দেশে পা বাড়াতেই গ্রেনেডে বিকট শব্দে স্তব্ধ নাজিমের কান। চারদিকে শুধু ধোঁয়া। মুহূর্তেই আরও দু’একটি শব্দের পর আর কিছুই জানেন না তিনি। 

ঘাতকদের গ্রেনেড হামলায় সেদিন গুরুতর আহত হন নাজিম উদ্দিন। পরে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে প্রাথমিকভাবে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ভেবে লাশের সঙ্গে ফেলে দিয়ে ছিল। পরে হঠাৎ জ্ঞান ফিরে তার। তাৎক্ষনিক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রেনাল হাসপাতালে নেয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে ভারতে চিকিৎসার জন্য পাঠান।

---------------------------------------------------
আরো পড়ুন: ডাক্তার হওয়া হলো না ইফাতের
---------------------------------------------------

সেখানে দীর্ঘ দিন চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরে আসেন। তার বুকে ও পায়ে ৪টি মেজর অপারেশন করা হয়েছে। এতেও পুরোপুরি সুস্থ বা চলাফেরায় স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে না পাওয়ায় কর্ম ক্ষমতাও হারিয়ে ফেলেন তিনি। বর্তমানে তার বুকে ও দুই পায়ে অসংখ্য স্প্লিন্টার রয়েছে। যা দ্রুত এগুলো অপসারণ করা খুবই প্রয়োজন। 
ফলে দিন শেষে রাতে যন্ত্রণায় ঘুমাতে পারেন না তিনি। শীত  এলে যন্ত্রণায় পরিমাণ আরও বাড়ে। আবার গরমে রোদে যেতে পারেন না তিনি। সামান্য চুলকানিতে শরীর দিয়ে রক্ত ঝরে। অর্থের অভাবে চিকিৎসা করতে না পারায় দুঃসহ যন্ত্রণা বয়ে বেড়াচ্ছেন নাজিম উদ্দিন। 

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় আহত ও প্রত্যক্ষদর্শী নাজিম উদ্দিন জানায়, ঘাতকদের গ্রেনেড হামলায় ইতোমধ্যে অনেকে মারা গেছেন। অনেকে আবার আহত অবস্থায় মৃত্যু যন্ত্রণা নিয়ে বেঁচে আছেন। যারা বেঁচে আছেন তারা অর্থের অভাবে চিকিৎসা করতে পারছেন না। এভাবে তিলে তিলে নিঃশেষ হয়ে যাচ্ছেন তারা। তাই, আহতদের পূর্ণ চিকিৎসা ও পূর্ণবাসনসহ গ্রেনেড হামলা জড়িতদের ফাঁসি দেখতে চান নাজিম।

এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়