• ঢাকা মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পা কেটে নেয়ার অভিযোগে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা বহিষ্কার, মামলা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি
|  ২১ এপ্রিল ২০১৯, ১৬:০৬ | আপডেট : ২১ এপ্রিল ২০১৯, ১৬:১৬
ঘটনার শিকার কালা মিয়া, ছবি: আরটিভি অনলাইন
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে এক ব্যক্তির পা কেটে নেয়ার ঘটনায় উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি আবুল বাশারকে প্রধান আসামি করে ১৪ জনের নামে মামলা হয়েছে। এছাড়া অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে আরও ১৫-২০ জনকে।

whirpool
ঘটনার শিকার কালা মিয়ার স্ত্রী সালমা আক্তার বাদী হয়ে রোববার সকালে এই মামলাটি দায়ের করেন।

এদিকে কালা মিয়ার কাটা পা এখনও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। ঘটনার নায়ক আবুল বাশারকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

শনিবার রাতে বাঞ্ছারামপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি হাসান ভূঁইয়া ও সাধারণ সম্পাদক আল আমিন স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই বহিষ্কারের কথা জানানো হয়।

এতে বলা হয়, স্বেচ্ছাসেবক লীগ বাঞ্ছারামপুর উপজেলা শাখার সহ-সভাপতি আবুল বাশার সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে তাকে সহ-সভাপতি পদ থেকে বহিষ্কার ও প্রাথমিক সদস্য পদ বাতিল করা হলো।

শুক্রবার উপজেলার রূপসদী গ্রামে পূর্ব বিরোধের জের ধরে আবুল বাশার ও তার সহযোগীরা কালা মিয়া (৪৫) এবং তার ছেলে বিপ্লব মিয়াকে (১৯) বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে টেঁটাবিদ্ধ করে। এসময় কালা মিয়া মাটিতে লুটে পড়লে ধারালো দা দিয়ে তার ডান পায়ের হাঁটু থেকে নিচ পর্যন্ত কেটে নিয়ে যায় বাশার ও তার সহযোগীরা। এসময় কালা মিয়ার ছেলে বিপ্লবের দুই পায়ের রগও কেটে দেয় তারা। তাদেরকে উদ্ধার করে প্রথমে বাঞ্ছারামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদেরকে ঢাকায় প্রেরণ করেন।

এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে কাটা পায়ের খণ্ডিত অংশ উদ্ধারে অভিযানে নেমে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৪ জনকে আটক করেছে বাঞ্ছারামপুর থানা পুলিশ। তবে তাদের নাম পরিচয় জানা যায়নি।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আলমগীর হোসেন জানান, এই ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে কাটা পা এখনও উদ্ধার হয়নি।

পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়