• ঢাকা বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১
logo

রূপগঞ্জে বেনজীরের বাংলোতে তল্লাশি চালিয়ে কিছুই পাওয়া যায়নি

আরটিভি নিউজ

  ১০ জুলাই ২০২৪, ১৮:৩৭
ছবি : সংগৃহীত

পুলিশের সাবেক আইজিপি বেনজীর আহমেদের নারায়াণগঞ্জের রূপগঞ্জে আনন্দ হাউজিং সোসাইটি এলাকায় ক্রোক ও সিলগালা করা বিলাসবহুল সেই বাংলো বাড়িতে তল্লাশি অভিযান শেষ করেছে জেলা প্রশাসন। তবে ৫ ঘণ্টা তল্লাশি অভিযানে উল্লেখযোগ্য বা অবৈধ কোনোকিছুই পাওয়া যায়নি।

বুধবার (১০ জুলাই) দুপুর ১২টা থেকে নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. শফিকুল আলমের নেতৃত্বে দুদক, উপজেলা প্রশাসন এবং উপজেলা ভূমি অফিসের কর্মকর্তারা বাড়ির ভেতরে ঢুকে যৌথভাবে তল্লাশি অভিযান শুরু করেন। তবে অভিযানের সময় বাড়ির ভেতরে কোনো গণমাধ্যমকর্মী বা স্থানীয় লোকজনদের কাউকে ঢুকতে দেওয়া হয়নি।

অভিযান শেষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. শফিকুল আলম জানান, পুরো বাড়ি তল্লাশি করে একটি পরিবারের ব্যবহারের জন্য যেসব আসবাবপত্র থাকা প্রয়োজন সে ধরনের জিনিসপত্র ও রান্নাঘরের সামগ্রী পাওয়া গেছে। যা খুবই সাধারণ মানের। বিলাসবহুল কোনো কিছুই পাওয়া যায়নি।

দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক মঈনুল হাসান রওশন গণমাধ্যমকে জানান, তল্লাশি করে যা যা পাওয়া গেছে সেগুলোর তালিকা তৈরি করা হয়েছে। শিগগিরই আদালতে সেই তালিকাটি উপস্থাপন করা হবে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রূপগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণবাগ এলাকায় আনন্দ হাউজিং সোসাইটিতে কৃত্রিম লেক রয়েছে। লেকের পাশে ২৪ কাঠা জায়গাজুড়ে লাল রঙের আলিশান ডুপ্লেক্স বাড়ি। এই বাড়ির মালিক পুলিশের সাবেক আইজিপি বেনজীর আহমেদ। আট বছর আগে এলাকার প্রয়াত প্রেমানন্দ সরকারের সন্তানদের কাছ থেকে ১ কোটি ৮৩ লাখ টাকায় ৫৫ শতাংশ জায়গা কেনেন তিনি। পরে বছর চারেক আগে এই জমিতে ওই বাড়ি করেন তিনি।

এর আগে গত শনিবার (৬ জুলাই) বিকেলে রূপগঞ্জ দক্ষিণবাগ এলাকায় নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসন ও জেলা দুর্নীতি দমন কমিশনের সমন্বয়ে গঠিত টিম বাড়িটি ক্রোক করে সিলগালা করে দেয়। তবে ডিজিটাল লক থাকায় বাড়ির মূল ভবনে প্রবেশ করতে পারেনি। ফলে বাড়ির সম্পদের পরিমাণ জানাতে পারেনি। খুব শিগগিরই কয়েক দিনের মধ্যে বাড়ির মূল ভবনের ভেতরে প্রবেশ করে মালামাল জব্দ করা হবে বলে জানিয়েছেন ।

ক্রোক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সাভানা ইকো রিসোর্ট প্রাইভেট লিমিটেড এর ২৪ কাঠা জমির ওপরে নির্মিত এই সম্পত্তির মালিক হিসেবে বেনজীর আহমেদের কন্যা মিজ ফারহীন রিশতা বিনতে বেনজির লেখা রয়েছে। আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী তার এই সম্পত্তিটি ক্রোক করা হয়েছে।

বেনজীর আহমেদ ২০২০ সালের ১৫ এপ্রিল থেকে ২০২২ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত পুলিশের আইজি ছিলেন। এর আগে তিনি ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার ও র‌্যাবের মহাপরিচালক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।

মন্তব্য করুন

  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়
আরও পড়ুন
বেনজীরের দুর্নীতির অনুসন্ধান শেষ পর্যায়ে, বেরিয়ে আসছে ‘থলের বিড়াল’
বেনজীরের চেয়েও ‘ক্লাব প্রেমে’ এগিয়ে পরীমণিকাণ্ডে আলোচিত নাসির
বেনজীর পরিবারের আট ফ্ল্যাট ও ২৫ একর ২৭ কাঠা জমির তত্ত্বাবধায়ক নিয়োগ
বেনজীরকে আর সময় নয়, আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা: দুদক