• ঢাকা রোববার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১
logo

কৃষকের জালে রাসেলস ভাইপার, কলাপাড়ায় আতঙ্ক

কুয়াকাটা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ২৪ জুন ২০২৪, ১৫:০২
কৃষকের জালে রাসেলস ভাইপার, কলাপাড়ায় আতঙ্ক
ছবি : আরটিভি

পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার ধুলাসার ইউনিয়নের বৌলতলী গ্রামের এক কৃষকের জালে ধরা পড়েছে একটি কিলিংমেশিন খ্যাত ভয়ংকর বিষধর রাসেলস ভাইপার সাপ। এটির দৈর্ঘ্য ৫ ফুট।

সোমবার (২৪ জুন) সকালে বৌলতলী গ্রামের কৃষক নুর হাওলাদার বাড়ির পুকুরের ওপর পাতা জালে সাপটি আটকে যায়। পরে ওই কৃষক সাপটি লাঠি দিয়ে আঘাত করে আহত অবস্থায় প্লাস্টিকের বড় কৌটায় জীবিত সংরক্ষণ করেন। এ সময় সাপটিকে একনজর দেখতে ভিড় জমান ওই এলাকার উৎসুক জনতা। তবে সাপটি উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছেন অ্যানিমেল লাভারস অব পটুয়াখালীর কলাপাড়া টিমের সদস্যরা। এ নিয়ে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

যদিও আতঙ্কিত হয়ে সাপটিকে লাঠি দিয়ে আঘাত করেন নুর হাওলাদার। পরে আহত অবস্থায় প্লাস্টিকের বড় কৌটায় জীবিত সংরক্ষণ করেন তিনি।

জানা গেছে, বাংলাদেশে বর্তমানে যেসব সাপ দেখা যায় সেগুলোর মধ্যে রাসেলস ভাইপার সবচেয়ে বিষাক্ত। এ সাপের কামড়ে শরীরের বিভিন্ন অংশে বিষ ছড়িয়ে অঙ্গহানি, ক্রমাগত রক্তপাত, রক্ত জমাট, স্নায়ু বৈকল্য, চোখ ভারী হয়ে যাওয়া, পক্ষাঘাত ও কিডনির ক্ষতিসহ বিভিন্ন ধরনের শারীরিক উপসর্গ দেখা দেয়।

স্থানীয় কৃষক নুর হাওলাদার বলেন, ‘সাপটি আমার জালে আটকা পড়ার বিষয়টি আমার স্ত্রী প্রথমে দেখেন। পরে আমাকে জানালে আমি এটি উদ্ধারের চেষ্টা করি। এ সময় আমার স্ত্রীর কথায় সাপটির ওপর লাঠি দিয়ে বেশ কয়েকটি আঘাত করি। তবে এটি এখনও জীবিত অবস্থায় আছে। এটি আমি একটি প্লাস্টিকের কৌটায় সংরক্ষণ করেছি। তবে বন বিভাগ বা কেউ সুস্থ করে এটিকে বনে অবমুক্ত করে দিতে পারলে তাদের দিয়ে দেবো।’

নয়াকাটা গ্রামের শাহিন চৌকিদার বলেন, ‘এই প্রথমবারের মতো রাসেলস ভাইপার সাপ দেখলাম। এর আগে ইউটিউব এবং ফেসবুকে এ সাপের ছবি দেখেছি। এটি একটি বিষাক্ত সাপ।’

তারিকাটা গ্রামের ইউসুফ ভূঁইয়া বলেন, ‘আমি রাসেলস ভাইপার সাপ ধরা পড়েছে শুনে এখানে দেখতে আসলাম। সাপটি দেখতে সুন্দর হলেও এটি তীব্র বিষধর সাপ। আমার মতো এখানে শত শত মানুষ সাপটিকে একনজর দেখতে এসেছে। তবে সাপটিকে মারা ঠিক হয়নি। এটা অনেকটা আহত, বাঁচানো যায় কি না সন্দেহ রয়েছে। সাপটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বনে অবমুক্তের অনুরোধ জানাচ্ছি।’

অ্যানিমেল লাভারস অব পটুয়াখালীর কলাপাড়া টিমের সদস্য বায়জিদ মুন্সী বলেন, ‘আমাদের একটি টিম ঘটনাস্থল যাচ্ছে। সাপটি উদ্ধার করে চিকিৎসা দিয়ে বন বিভাগকে হস্তান্তর করবো।’

তিনি আরও বলেন, ‘সবাইকে সাপ দেখে আতঙ্কিত না হয়ে আমাদের খবর দেওয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি। সর্পদংশনের শিকার হলে নিকটস্থ সরকারি হাসপাতালে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করছি। এ ছাড়া সাপ ধরার রেসকিউ টিমের সদস্যদের খবর দিলেও হবে। সাপ আসলে আমাদের জীব বৈচিত্র্যের জন্য অনেক উপকারী বন্ধু। যা খাদ্যশৃঙ্খলে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।’

এ বিষয়ে কলাপাড়া উপজেলা হাসপাতালের চিকিৎসক ড. শংকর চন্দ্র অধিকারী বলেন, ‘রাসেলস ভাইপার সাপ থেকে সবাইকে এ বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। কাউকে যদি সাপ কামড় দেয় তবে সঙ্গে সঙ্গে তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসতে হবে। সরকারি হাসপাতালে এর চিকিৎসার ব্যবস্থা রয়েছে।’

মন্তব্য করুন

  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়
আরও পড়ুন
ছয় মাসে সাপের দংশনে ৩৮ জনের মৃত্যু: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর
হাইমচরে দুটি রাসেলস ভাইপার মারল এলাকাবাসী
রাসেলস ভাইপার ভেবে অজগর আটক 
থানার ভেতর রাসেলস ভাইপার, আতঙ্কে পুলিশ সদস্যরা