• ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
logo

বেয়াইনের করা মামলায় বিএনপি নেতার ৩ বছরের কারাদণ্ড

পাথরঘাটা প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ১১ জুন ২০২৪, ২২:৪১
ছবি : সংগৃহীত

মেয়েকে তালাক দেওয়ার পর সাবেক জামাতা ও তার মাকে মারধর এবং বাড়িতে লুটপাটের অভিযোগে করা মামলায় বিএনপি নেতা ও ইউপি সদস্যকে তিন বছর সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

সোমবার বিকেলে বরগুনার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ মাহবুব আলম এ দণ্ডাদেশ দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি মো. মহিউদ্দিন পান্না (৫০) বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার নাচনাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। তিনি উপজেলার নাচনাপাড়া ইউনিয়ন বিএনপির আহ্বায়ক ও স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য। রায় ঘোষণার সময় মহিউদ্দিন পান্না আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

একই ইউনিয়নের মানিকখালী গ্রামের খালেক খলিফার ছেলে আব্দুল্লাহ আল নোমানের মা রেণু বেগম বাদী হয়ে ২০১৯ সালের ৭ এপ্রিল মহিউদ্দিন পান্নাসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে পাথরঘাটা থানায় মামলা করেন।

মামলার বাদীর অভিযোগ, মহিউদ্দিন পান্নার মেয়ে লায়লা আক্তার পপিকে বিয়ে করেন তার ছেলে আব্দুল্লাহ আল নোমান। একপর্যায়ে নোমান তার স্ত্রীকে তালাক দেন। এ কারণে ২০১৯ সালের ৭ জুন সকালে পান্নাসহ ৮-১০ জন নোমানের বাড়িতে ঢুকে মালামাল লুটে নেন। নোমান বাধা দিলে তার মাথায় আঘাত করেন পান্না। এ সময় নোমানের মাকেও পিটিয়ে জখম করা হয়।

নোমান বলেন, আমার স্ত্রীর অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে তালাক দিই। এ কারণে আমার সাবেক শ্বশুর মহিউদ্দিন পান্না দলবল নিয়ে আমাদের বসতঘরে ঢুকে আমার মাকে ও আমাকে মারধর করে। ঘরের সব মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এখনো আমার বাড়ি পান্নার দখলে। আমি বাড়ি যেতে পারি না।

মামলার রায়ের পর আদালত প্রাঙ্গণে ইউপি সদস্য মহিউদ্দিন পান্না বলেন, এ রায়ের বিরুদ্ধে আমি আপিল করব।

মন্তব্য করুন

daraz
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়
আরও পড়ুন
কলেজছাত্র হত্যা মামলায় ৩ জনের যাবজ্জীবন
‘যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হতে পারে ড. ইউনূসের’
অস্ত্র কেনার মামলায় দোষী বাইডেনপুত্র, হতে পারে ২৫ বছর কারাদণ্ড
পায়ুপথে বাতাস ঢুকিয়ে শিশু হত্যা, ৩ যুবকের কারাদণ্ড