Mir cement
logo
  • ঢাকা সোমবার, ১৬ মে ২০২২, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

আরটিভি নিউজ

  ১৫ জানুয়ারি ২০২২, ১৩:১২
আপডেট : ১৫ জানুয়ারি ২০২২, ১৩:৪০

ভোটের দিন জাতীয় পরিচয়পত্র নিয়ে চলতে হবে নারায়ণগঞ্জে

'নারায়ণগঞ্জে ভোটের দিন চলতে গেলে লাগবে জাতীয় পরিচয়পত্র'
নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনে বহিরাগতদের উৎপাত বন্ধ করে ভোটের সার্বিক পরিবেশ সুষ্ঠু রাখতে রোববার (১৬ জানুয়ারি) নগরীর ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে সবাইকে ভোটের দিন চলতে গেলে লাগবে জাতীয় পরিচয়পত্র। শহরের পুলিশ লাইনসে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের উদ্দেশে নির্বাচনি ব্রিফিং অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন পুলিশ সুপার মো. জায়েদুল আলম।

তিনি বলেন, আমি বলতে চাই, কোনো বহিরাগতকে আমরা আগামীকাল নারায়ণগঞ্জে প্রবেশ করতে দেব না। প্রতিটি পাড়া মহল্লায় আমাদের যে মোবাইল টিম থাকবে, আমাদের চেকপোস্ট থাকবে, জাতীয় পরিচয়পত্র দেখে আমরা মানুষকে চলাচল করতে দেব। কালকে নারায়ণগঞ্জ মহানগর এলাকার যে বা যারা বের হবেন দয়া করে অবশ্যই জাতীয় পরিচয়পত্র নিয়ে বের হবেন, যাদের বয়স ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে।

নির্বাচনের সার্বিক পরিবেশ সুষ্ঠু রাখতে ৫ হাজারেরও বেশি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের নিয়োজিত করা হয়েছে বলেও জানান পুলিশ সুপার।

তিনি বলেন, কেউ যেন নির্বাচনের উৎসব, আমেজ বিনষ্ট করার চেষ্টা না করে। কোনো ধরনের দুষ্কৃতকারী, অতি উৎসাহীমহল যদি ভোটকেন্দ্রে, ভোটকেন্দ্রের বাইরে কোনো পাড়া-মহল্লায় কোনো অরাজকতা তৈরির চেষ্টা করে কঠোর হস্তে দমন করা হবে।

সন্ত্রাসী ও দুষ্কৃতকারীদের উদ্দেশ্যে এসপি জায়েদুল আলম বলেন, কোনো ধরনের ছাড় আমরা দেব না। কাউকে কোনো ধরনের অরাজকতা করতে দেব না। আইন শৃঙ্খলাবাহিনী কঠোর অবস্থানে আছে, থাকবে।

সাধারণ ভোটাররা সম্পূর্ণ স্বাধীনভাবে ভোট কেন্দ্রে এসে ভোট দিতে পারবেন বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা। তিনি বলেন, কোনো বাধা বিপত্তি থাকবে না। কেউ বাধা দিতে আসলে আমরা প্রতিহত করব। সার্বিক সহযোগিতায় কোনো ধরনের বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়াই প্রচারণা শেষ হয়েছে বলেও দাবি করেন জায়েদুল আলম।

তিনি জানান, প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে পুলিশ, আনসার, এপিবিএন ও র‍্যাব কাজ করবে। স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসাবে বিজিবি কাজ করবে। প্রতিটি ওয়ার্ডে একটি করে টিম থাকবে সবগুলো বাহিনীর। নির্বাচনকে ঘিরে প্রতিটি ভোটকেন্দ্র ও পাড়া-মহল্লা নিরাপত্তা বলয়ের মধ্যে নিয়ে আসব।

নির্বাচনে সাতজন মেয়র ও ১৮২ জন কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ভোটের দিন সবার কাছ থেকে সহযোগিতা চাইলেন এসপি জায়েদুল আলম।

তিনি বলেন, তারা সবাই সহযোগিতা করবেন বলেছেন। কারও প্রার্থীকে কিংবা নির্বাচনে কোনো দল, ব্যক্তি, গোষ্ঠীর পক্ষে বা বিপক্ষে কাজ করছি না। যাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আছে, অবৈধ অস্ত্রধারী, মাদক কারবারীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাচ্ছি।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনে ভোট উপলক্ষে শুক্রবার শেষ হয়েছে ১৭ দিনের বিরামহীন প্রচারণা। এবার ভোটের অপেক্ষা। রোববার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলবে একটানা ভোটগ্রহণ। ভোট হবে ইভিএম পদ্ধতিতে। পাঁচ বছরের জন্য নতুন নগরপিতা পাবে নারায়ণগঞ্জ।

এমআই/টিআই

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS