Mir cement
logo
  • ঢাকা সোমবার, ১৬ মে ২০২২, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

কুমিল্লা (উত্তর) প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ১৩ জানুয়ারি ২০২২, ২১:০৬
আপডেট : ১৩ জানুয়ারি ২০২২, ২২:২৩

নৌকা প্রার্থীর প্রতিদ্বন্দ্বী ভাসুর ও সৎ ছেলে

নৌকা প্রার্থীর প্রতিদ্বন্দ্বী ভাসুর ও সৎ ছেলে
নৌকা প্রার্থীর প্রতিদ্বন্দ্বী ভাসুর ও সৎ ছেলে

কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার ৬নং ফতেহাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীর প্রতিদ্বন্দ্বী হয়েছেন সৎ পুত্র ও ভাসুর। আসন্ন সপ্তম ধাপের ইউপি নির্বাচনে মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী এবং সমাজকর্মী শাহনাজ পারভিন ওই ইউপিতে নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন। এতে চির বৈরী সৎ ছেলে আল মামুন বাবু এবং ভাসুর বর্তমান চেয়ারম্যান এম এ ছালামও প্রার্থী হয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ফাতেহাবাদ ইউপিতে নৌকার মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন বর্তমান চেয়ারম্যান এম এ ছালাম এবং তারই আপন ভাই গোলাম মোস্তফার স্ত্রী শাহনাজ পারভীন। কিন্তু দলের মনোনয়ন লাভ করেন আওয়ামী লীগ নেত্রী শাহনাজ পারভীন। এতে নৌকার প্রার্থীকে পরাজিত করতে উঠেপড়ে লাগেন সৎপুত্র এবং ভাসুর বর্তমান চেয়ারম্যান এম এ ছালাম।

স্থানীয়রা আরটিভি নিউজকে জানিয়েছেন, এম এ ছালাম চেয়ারম্যানের পরিবারের মাঝে দীর্ঘদিন ধরে অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব বিরাজ করছে। এরই মাঝে আসন্ন ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যানের ছোটভাই গোলাম মোস্তফার স্ত্রী নারী নেত্রী এবং সমাজকর্মী শাহনাজ পারভীন নৌকার মনোনয়ন লাভ করেন। ওই কোন্দলের সূত্র ধরেই নৌকা ডুবাতে একই পরিবারের আরও দুজন স্বতন্ত্র হিসেবে প্রার্থী হয়েছেন।

আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শাহনাজ পারভিন আরটিভি নিউজকে বলেন, আমি বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগ দেবিদ্বার শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক এবং তৃণমূলের সঙ্গে কাজ করার সুফল হিসাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে নৌকা প্রতীক দিয়েছেন। আমার ভাসুর বর্তমান চেয়ারম্যান এম এ ছালাম বিগত নির্বাচনে ওয়াদা করেছিলেন এবারের নির্বাচনে তিনি আর প্রার্থী হবেন না। সেই প্রেক্ষিতে আমি সেই থেকেই এলাকায় কাজ করে যাচ্ছি। তিনি বলেন, নৌকা ডুবাতেই পরিকল্পিতভাবে আমার ভাসুর এবং সৎপুত্র প্রার্থী হয়েছেন।

৬নং ফতেহাবদ ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান এম এ ছালাম বলেন, আমি নৌকার মনোনয়ন চেয়েছিলাম কিন্তু পাইনি। আমার পরিবারের সদস্য নৌকা পেলেও সেটা আমার দেখার বিষয় না। আমি পুনরায় বিজয়ী হওয়ার লক্ষ্য নিয়েই স্বতন্ত্র থেকে প্রার্থী হয়েছি।

স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আল-মামুন বাবু বলেন, নৌকা ডুবাতে কিংবা সৎ মায়ের প্রতি ক্ষুব্ধ হয়ে প্রার্থী হইনি। আমি জনগণের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে শেষ পর্যন্ত মাঠে থাকবে।

সপ্তম ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দেবিদ্বার উপজেলার ১৫ ইউনিয়নে মনোনয়ন বাছাই ১৫ জানুয়ারি। প্রত্যাহার ২২ জানুয়ারি আর ৭ই ফেব্রুয়ারি ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

এমআই/টিআই

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS