Mir cement
logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

রাজশাহী সংবাদদাতা, আরটিভি নিউজ

  ২৭ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬:০৩
আপডেট : ২৭ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬:২৩

‘আমার নিজের দেওয়া ভোটটা গেল কই’ 

‘আমার নিজের দেওয়া ভোটটা গেল কই’ 
ফাইল ছবি

ভোটগ্রহণ শেষে যথারীতি শুরু হয় গণনা। কিন্তু ভোট গণনা শেষে এক প্রার্থীর চক্ষু চড়কগাছ! কারণ তার ভোট দেখানো হয় শূন্য! কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে তখন প্রার্থীর প্রশ্ন, ‘আমার ভোটটা গেল কই?’

রোববার (২৬ ডিসেম্বর) রাতে রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার বেলঘড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অবাক করার মতো এই ঘটনাটি ঘটেছে। ভোট গণনা শেষে মোরগ প্রতীকের ইউপি মেম্বার প্রার্থী আবু তালেবের ভোট শূন্য বলে ঘোষণা করা হয়। তিনি এই ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার।

এ ঘটনায় ফুঁসে ওঠেন তার কর্মী-সমর্থকরা। তারা ওই কেন্দ্র ঘেরাও করে আবারও ভোট গণনার দাবিতে শুরু করেন বিক্ষোভ। পরে পুলিশ কয়েক দফায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। এরপর আবু তালেবের ভোট আবারও গণনা শুরু করেন সংশ্লিষ্ট প্রিসাইডিং অফিসার। এবার দ্বিতীয় দফায় গণনা শেষে তিনি ৮৩ ভোট পেয়েছেন বলে জানানো হয়। যদিও আবু তালেব ও তার কর্মী-সমর্থকরা এই ফলাফল মেনে নেননি। তারা ভোট কারচুপির অভিযোগ করেন এবং এর সঙ্গে জড়িতদের শাস্তির দাবিতে স্লোগান দেন এবং বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন।

ভোটের ফলাফল ঘোষণার পর চারঘাট উপজেলার ইউসুফপুর ইউনিয়নের শূন্য ভোট পাওয়া ১ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার পদপ্রার্থী আবু তালেব বলেন, আমার নিজের দেওয়া ভোটটা গেল কই? আমার পরিবারের সদস্যরা মোরগ প্রতীকে ভোট দিয়েছেন। সে ভোটগুলো কোথায় যাবে?

ফলাফল ঘোষণার পর আবু তালেবের ছেলে তারিক আজিজ সাংবাদিকদের বলেন, তার বাবা সাবেক ইউপি সদস্য। পাস না করলেও তার বাবা ৩০০ থেকে ৪০০ ভোট এমনিতেই পাবেন। সেই ভোট না পেলেও তাদের পরিবারের সদস্যদের দেওয়া ভোট কোথায় গেল?

পরবর্তীতে রাত ১১টায় চূড়ান্ত ভোট গণনা শেষে শূন্য ভোট পাওয়া আবু তালেব পান ৮৩ ভোট। ফুটবল প্রতীক নিয়ে ১ হাজার ১১ ভোট পেয়ে রিংকু আহমেদ বিজয়ী হন। যদিও প্রথমবার তিনি ১ হাজার ৬ ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছিলেন। প্রথমবার তালা প্রতীকের প্রার্থী নাজিম উদ্দিন পেয়েছিলেন ১ হাজার ২৯ ভোট। প্রথমে তাকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছিল। পরে তাকে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ঘোষণা করা হয়।

এ ঘটনার পর নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান বলেন, গণনার সময় ভোটের কিছু ব্যালট পেপার টেবিলের নিচে পড়েছিল। যে কারণে ভোট গণনার সময় এই ভুল হয়েছিল। পরে টেবিলের নিচে সেগুলো পাওয়ার পর পুনরায় গণনা করে তাৎক্ষণিকভাবে ফল ঘোষণা করা হয়।

এসএস/এসকে

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS