Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ১৬ জানুয়ারি ২০২২, ২ মাঘ ১৪২৮
discover

বিদ্রোহীদের ঘূর্ণিঝড়ে নৌকার ভরাডুবি

বিদ্রোহীদের ঘূর্ণিঝড়ে নৌকার ভরাডুবি
ফাইল ছবি

বিচ্ছিন্ন সহিংসতার মধ্য দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে এক হাজার ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। এই ধাপে ৩৩টি ইউপিতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) এবং বাকিগুলোতে ব্যালট পেপারের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ হয়েছে। ভোটগ্রহণ রোববার (২৮ নভেম্বর) সকাল ৮টায় শুরু হয়ে বিরতিহীনভাবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলে। দিনভর জাল ভোট, ভোট বর্জন, ব্যালট পেপার ছিনতাই ও হামলা-পাল্টা হামলার ঘটনা ঘটেছে দেশের বিভিন্ন ভোটকেন্দ্রে। সারাদেশ থেকে পাঠানো প্রতিনিধিদের রিপোর্ট।

ফরিদপুর:

ফরিদপুরের ভাঙ্গা ও চরভদ্রাসন উপজেলার ১৫টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রার্থীদের ভরাডুবি হয়েছে। ১৫টি ইউপির মধ্যে ১৪টিতেই স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জয়লাভ করেছেন। মাত্র ১টিতে নৌকা বিজয়ী হয়েছে।

নৌকা প্রতীকের একমাত্র বিজয়ী প্রার্থী হলেন ভাঙ্গা উপজেলার কাউলিবেড়া ইউনিয়নের মো. রেজাউল হাসনাত দুদু।

স্বতন্ত্র বিজয়ীরা হলেন— ভাঙ্গা উপজেলার আজিমনগর ইউনিয়নের শাজাহান হাওলাদার মিয়া, আলগী ইউনিয়নে ম. ম সিদ্দিক, কালামৃধা ইউনিয়নে রেজাউল মাতুব্বর, ঘারুয়া ইউপিতে মুনসুর মুনসি, চান্দ্রা ইউপিতে খালেক মোল্লা, চুমুরদিতে রফিকুল ইসলাম সোহাগ, তুজারপুরে ওলিউর রহমান, নাসিরাবাদে আলমগীর খান, নুরুল্লাগঞ্জে সৈয়দ শাহাবুর, মানিকদহে শহিদুল্লাহ বাচ্চু ও হামেরদিতে খোকন মোল্লা।

এছাড়া চরভদ্রাসন উপজেলার সদর ইউপিতে আজাদ খান (স্বতন্ত্র), চরহরিরামপুর ইউপিতে জাহাঙ্গীর কবির (বিএনপি স্বতন্ত্র), গাজিরটেক ইউপিতে মো. ইয়াকুব আলী (বিএনপি স্বতন্ত্র)।

নোয়াখালী:

নোয়াখালীর সেনবাগ পৌরসভার মেয়র ও চার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীদের ভরাডুবি হয়েছে।

ভোট গণনা শেষে রোববার (২৮ নভেম্বর) রাতে বেসরকারি ফলাফল ঘোষণা করেন সেনবাগ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মো. আরিফুল ইসলাম।

সেনবাগ পৌরসভার মেয়র পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী (আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী) আবু নাছের ওরফে ভিপি দুলাল নারিকেল গাছ প্রতীকে বিজয়ী হয়েছেন।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আরও বলেন, ছাতারপাইয়া ইউনিয়নে বিএনপি দলীয় স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আবদুর রহমান (আনারস), কাদরা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী (আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী) মো. গিয়াস উদ্দিন ভূঁইয়া (আনারস), কাবিলপুর ইউনিয়নে বিএনপি দলীয় স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আনোয়ার হোসেন বাহার (টেলিফোন), বীজবাগ ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী (আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী) সেলিম উদ্দিন কাজল (আনারস) বিজয়ী হয়েছেন।

এর আগে ৩ নম্বর ডুমুরুয়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী শওকত হোসেন কানন নৌকা প্রতীক নিয়ে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়লাভ করেছেন।

হিলি:

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে নৌকার ভরাডুবি। ৯টি ইউনিয়ের মধ্যে ১টিতে নৌকা ৮টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয় লাভ করেছেন।

ইউনিয়নের বিজয়ীরা হলেন, ১নং জয়পুর ইউনিয়নে ওবায়দুর রহমান (সতন্ত্র), ২নং বিনোদনগড় ইউনিয়নে নজরুল ইসলাম (স্বতন্ত্র, ৩নং গোলাপগঞ্জ ইউনিয়নে রাশেদুল কবির (স্বতন্ত্র), ৪নং শালখুরিয়া ইউনিয়নে তারা মিয়া (সতন্ত্র), ৫নং পুটিমারা ইউনিয়নে আনিছুর রহমান (স্বতন্ত্র), ৬নং ভাদুরিয়া ইউনিয়নে বাবুল আহসানুল কবির (আওয়ামীলীগ), ৭নং দাউদপুর ইউনিয়নে আহসান হাবিব (স্বতন্ত্র), ৮নং মাহমুদপুর ইউনিয়নে হাছান মোঃ ছালাহ উদ্দিন (সতন্ত্র) এবং ৯নং কুশদহ ইউনিয়নে আনোয়ারুল আজিম (স্বতন্ত্র)।

নড়াইল:

নড়াইলের কালিয়ায় ১০ ইউনিয়নে স্বতন্ত্র ও দুটিতে নৌকার প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন। রোববার (২৮ নভেম্বর) রাতে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ওয়ালি উল্লাহ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, শান্তিপূর্ণ পরিবেশে উপজেলার ১২ ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। উপজেলার কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, নৌকা প্রতীক নিয়ে উপজেলার হামিদপুর ইউনিয়নে পলি বেগমও মাউলী ইউনিয়নে রোজী হক বিজয়ী হয়েছেন।

অপরদিকে স্বতন্ত্রপ্রার্থী উপজেলার কলাবাড়ীয়া ইউনিয়নে মাহমুদুল হাসান কায়েস, বাবরা-হাচলা ইউনিয়নে মো. মোজাম্মেল হোসেন, চাচুড়ি ইউনিয়নে মেলজার হোসেন ভূঁইয়া, পুরুলিয়া ইউনিয়নে আমিনুল ইসলাম, সালামাবাদ ইউনিয়নে মাহবুবুর মোল্যা, ইলিয়াচাবাদ ইউনিয়নে মল্লিক মানিরুল ইসলাম, বাঐশোনা ইউনিয়নে মো. চুন্নু শেখ, পহরডাঙ্গা ইউনিয়নে মল্লিক মাহামুদুল ইসলাম, জয়নগর ইউনিয়নে কাজী আইয়ুব হোসেন ও খাশিয়াল ইউনিয়নে বিএম বরকত উল্লাহ নির্বাচিত হয়েছেন।

সুনামগঞ্জ:

তৃতীয় ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সুনামগঞ্জ সদর ও দক্ষিণ উপজেলায় আওয়ামী বিদ্রোহী ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের নির্বাচনী ঘুর্ণিঝড়ে নৌকার ভরাডুবি হয়েছে। দুই উপজেলার ১৭ ইউনিয়নে আ.লীগ কেবল দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপেজলার দুই ইউনিয়নে জয় হয়েছেন। ৫ টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী, ২ জাতীয় পার্টি ১ টিতে ও ৯ টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন ।

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার জাহাঙ্গীর নগর ইউনিয়ন লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে জাতীয় পার্টির প্রার্থী রশীদ আহমদ ও রঙ্গারচর ইউনিয়নে মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে দ্বিতীয়বারের ন্যায় আব্দুল হাই, আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী হিসেবে সুরমা ইউনিয়নে আমীর হোসেন রেজা, লক্ষণশ্রী ইউনিয়নে আনারস প্রর্তীক নিয়ে টানা তিনবারের মতো চেয়ারম্যান নির্বাচন হয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল ওয়াদুদ, কুরবাননগর ইউনিয়নে মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে টানা তিন বারের ন্যায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল বরকত, গৌরারং ইউনিয়নে লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে শওকত ইসলাম, মোহনপুর ইউনিয়নে মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী মঈন উল হক, মোল্লাপাড়া ইউনিয়নে মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে টানা তিনবারের ন্যায় চেয়ারম্যান বিজয়ী হয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী নুরুল হক।

এমআই

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS