Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

টাঙ্গাইলে আবারও সক্রিয় হচ্ছে কিশোর গ্যাং

টাঙ্গাইলে আবারও সক্রিয় হচ্ছে কিশোর গ্যাং
আহত শিক্ষার্থী হাসপাতালে ভর্তি

টাঙ্গাইল সদরসহ উপজেলাগুলোতে আবারও সক্রিয়তার জানান দিচ্ছে কিশোর গ্যাং। বছর খানেক আগে ২০২০ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি টাঙ্গাইল পৌর-সভার ২শ’ গজ দূরে পৌর উদ্যানের পাশে, নজরুল সেনা স্কুলের সামনে ইশরাক নামে এক কলেজ ছাত্রকে কুপিয়ে খুন করে দুর্বৃত্তরা। এ খুনের ঘটনার তদন্তে বেরিয়ে আসে কিশোর গ্যাং সদস্যরা এ হত্যা কাণ্ডের সঙ্গে জড়িত।

প্রশাসন তখন নড়েচড়ে বসে এবং এদের নির্মূল করতে বিভিন্ন রকম তৎপরতা চালায়। এতে পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসে। কিন্তু ইদানীং কিশোর গ্যাং শুধু নয়, বিভিন্ন নামে বা সংকেতে জেলার বিভিন্ন উপজেলায় এসব উঠতি বয়সী বখাটেরা তাদের অপকর্ম তৎপরতা চালানোর চেষ্টা করছে।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) সন্ধ্যায় সখীপুর উপজেলার পিএম পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজের ৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থীকে হাতুড়ি পেটা করে গুরুতর আহত করে। হামলাকারীরা সখীপুর পৌরসভার জুনিয়র এফসি ক্লাবের সদস্য বলে জানা যায়। আহত স্কুল ছাত্র রোকন খান (১৫), পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের আমির আলী খানের ছেলে।

জানা যায়, সপ্তাহ খানেক আগে সহপাঠী নাহিদের সঙ্গে শ্রেণিকক্ষে বই হারানোর বিষয়কে কেন্দ্র করে কথা কাটাকাটি হয় রোকনের। এক সপ্তাহ পর শনিবার (১৬ অক্টোবর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে সহপাঠী নাহিদ হাসান (১৫), টাঙ্গাইল সৃষ্টি শিক্ষা পরিবারের ছাত্র পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ড এলাকার সাঈম হাসান (১৭) এবং ৬নং ওয়ার্ডের মুন্না সিকদারের ছেলে মেহরাব সিকদার (১৮) ৫নং ওয়ার্ডের জামতলা এলাকার রাকিব (১৮) বেড়ানোর কথা বলে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। পৌরসভার ৮ নাম্বার ওয়ার্ডের মিলপাড় এলাকার হাওয়া বেগমের বাসার কাছে পৌঁছালে হাতুড়ি দিয়ে রোকনের মাথায় এলোপাতাড়িভাবে আঘাত করতে থাকে। পরে রোকনের চিৎকারে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে রক্তাক্ত অবস্থায় সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য-কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. রাজিয়া সুলতানা জানান, আহত রোকনের মাথায় গুরুতর জখম এবং ফেটে যাওয়া স্থানে ৯টি সেলাই দেওয়া হয়েছে।

রোকনের বড় ভাই হাতেম খান হামলাকারীদের নামে সখীপুর থানায় মামলার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে বলে জানান।

সখীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) একে সাইদুল হক ভূঁইয়া বলেন, এ ঘটনায় এখনো কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত-পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জিএম/এসকে

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS