Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

বরগুনা প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:১৫
আপডেট : ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:৪১

কিশোরী ধর্ষণ মামলায় জামিনে বের হয়ে আরেক কিশোরীকে ধর্ষণ করলো রাব্বী

কিশোরী ধর্ষণ মামলায় জামিনে বের হয়ে আরেক কিশোরীকে ধর্ষণ করলো রাব্বী
ফাইল ছবি

বরগুনায় কিশোরী ধর্ষণ মামলায় জামিনে বের হয়ে আরেক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে গোলাম রাব্বী (৩০) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে বরগুনা থানায় মামলা হয়েছে।

বুধবার রাতে এসএসসি পরীক্ষার্থী ওই কিশোরীর মা বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেছেন।

মামলার অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, বিয়ের প্রলোভনে মিথ্যা কাবিননামা বানিয়ে মাসের পর মাস ওই এসএসসি পরীক্ষার্থীকে ধর্ষণ করেছে রাব্বী। শারীরিক সম্পর্কে রাজি না হলে নির্যাতনের পাশাপাশি নেশার দ্রব্য খাইয়ে ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করা হতো। সর্বশেষ গত ২৬ সেপ্টেম্বর রাব্বি তার বন্ধু মামুনের বাসায় নিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ করে। এরপর নিজের ভাড়া বাসায় নিয়ে ভুক্তভোগী ওই কিশোরীর ওপর পাশবিক নির্যাতন চালায়।

ওই কিশোরীর মা আরও জানান, বাবা-মায়ের একমাত্র সন্তান গোলাম রাব্বী দীর্ঘদিন ধরে মাদক ও যৌন হয়রানিমূলক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত। মাদক ব্যবসার প্রসার এবং উঠতি বয়সী তরুণীদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে ধর্ষণ করাই তার মূল লক্ষ্য। বয়স ত্রিশের কোঠায় পৌঁছার আগেই নারী নির্যাতন, ধর্ষণ, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও মাদক নিয়ন্ত্রণ আইনে একাধিক মামলার প্রধান আসামির তালিকায় রয়েছে রাব্বীর নাম। সরকারি চাকরিজীবী বাবা-মায়ের প্রভাব ও টাকার জোরে বহু অভিযোগ থেকে বিনা বিচারে মুক্তিও পেয়েছেন তিনি। এমন ঘটনাও রয়েছে অসংখ্য। আর এ কারণেই দিন দিন আরও বেপরোয়া হয়ে উঠছে গোলাম রাব্বী।

জানা গেছে, গোলাম রাব্বী তার স্ত্রী স্মৃতি আক্তারকে কৌশলে শ্বশুরবাড়ি পাঠিয়ে দিয়ে গত ৫ আগস্ট স্ত্রীর বান্ধবীকে কৌশলে বাসায় ডেকে এনে ধর্ষণ করে। ভয়ভীতি দেখিয়ে ওই কিশোরীকে একইভাবে পরদিনও ধর্ষণ করে রাব্বী। হঠাৎ ঘরে ঢুকে স্ত্রী ওই কিশোরীসহ রাব্বিকে দেখে থানায় ফোন করেন তার স্ত্রী। পুলিশ এসে কিশোরীকে উদ্ধার এবং একই সময়ে অভিযান চালিয়ে রাব্বিকে আটক করে। এ ঘটনায় স্কুল পড়ুয়া ওই কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে ৬ আগস্ট বরগুনা সদর থানায় গোলাম রাব্বীর বিরুদ্ধে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়। মামলাটি দায়ের করেন ভুক্তভোগী ওই কিশোরীর মা। ওই মামলায় পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করে। পরে জামিনে বের হয়ে যায় রাব্বী।

বরগুনার থানার ওসি (তদন্ত) শহীদুল ইসলাম জানান, রাতে মামলার পরেই তারা রাব্বীকে গ্রেপ্তার অভিযান শুরু করেছেন।

বরগুনা থানার ওসি তারিকুল ইসলাম জানিয়েছেন, এর আগেও ১৬ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে। তারা রাব্বীকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছিলেন।

তিনি আরও জানান, এর আগে মাদকের মামলাও রাব্বীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।

এসএস

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS