Mir cement
logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩ আশ্বিন ১৪২৮

নরসিংদী প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ২৭ জুলাই ২০২১, ১৮:৪৮
আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ১৯:০৫

নৌকা ভ্রমণের চাঁদার টাকা ফেরত চাওয়ায় যুবককে হত্যা

নৌকা ভ্রমণের চাঁদার টাকা ফেরত চাওয়ায় যুবককে হত্যা
নিহত শ্রাবণ

নরসিংদীর মনোহরদীতে নৌভ্রমণের জন্য দেওয়া চাঁদার টাকা ফেরত চাওয়ায় আকরাম হোসেন শ্রাবণ (২২) নামে এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করেছেন বখাটেরা।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) দুপুরে দুই জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এর আগে সোমবার (২৬ জুলাই) রাতে উপজেলার একদুয়ারিয়া ইউনিয়নের একদুয়ারিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে এই হত্যার ঘটনা ঘটে। নিহত আকরাম হোসেন শ্রাবণ একই ইউনিয়নের কামার আলগী এলাকার মো. শাহজাহানের ছেলে। হত্যার ঘটনায় গ্রেফতারকৃতরা হলেন, একই ইউনিয়নের আসাদ মিয়ার ছেলে হৃদয় মিয়া (১৮) ও রান্দনদিয়া এলাকার জাকির হোসেনের ছেলে মৃদুল মিয়া (১৬)।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার জানায়, গত ২৫ জুলাই রোববার হৃদয়ের নেতৃত্বে একদুয়ারিয়া এলাকার ৭৩ জন তরুণ পাশের শিবপুর উপজেলার লাখপুরে শীতলক্ষ্যা নদীতে ঈদ পরবর্তী নৌকা ভ্রমণে যান। এজন্য সবার কাছ থেকে ৫০০ করে টাকা নেওয়া হয়। করোনাকালে সরকারি বিধি-নিষেধ অমান্য করায় নরসিংদী জেলার নির্বাহী ম্যাজিস্টেট রিনাত ফৌজিয়া লাখপুর বেড়িবাঁধ এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে নৌকাটি আটক করেন। এসময় বিধি-নিষেধ ভঙ্গের কারণে হৃদয়, মৃদুল, বায়েজিদ ও ইয়াছিনসহ ৩২ জনকে আর্থিক জরিমানা করা হয়। যার ফলে নৌকা ভ্রমণ পণ্ড হয়ে যায়। পরে বায়েজিদ ও ইয়াছিন নৌকা ভ্রমণ না করার কারণে হৃদয়কে তাদের চাঁদা ও জরিমানার টাকা ফেরত দিতে বলে। কিন্তু হৃদয় তা দিতে অপরাগতা জানায়। পরে তারা টাকা উদ্ধারের জন্য তাদের সহপাঠী শ্রাবণকে জানায়। শ্রাবণ টাকার জন্য হৃদয়কে চাপ দেয়। হৃদয় টাকা নেওয়ার জন্য শ্রাবণকে সোমবার রাতে একদুয়ারিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে ডেকে আনে। এসময় হৃদয় ও মৃদুলসহ চার-পাঁচজন যুবক বাঁশের লাঠি দিয়ে শ্রাবণ ও তার মামা সাখাওয়াতকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে রাস্তায় ফেলে রেখে পালিয়ে যান। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে শিবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক শ্রাবণকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় মঙ্গলবার দুপুরে শ্রাবণের বাবা মো. শাহজাহান দু’জনের নাম উল্লেখ করে চার-পাঁচজনকে আসামি করে মনোহরদী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

নিহতের বাবা শাহজাহান বলেন, আমার ছেলে নৌ-ভ্রমণে যায়নি। সে অন্যের ভালো করতে গিয়েছিল। কিন্তু সামান্য কয়েকটা টাকার জন্য তারা আমার ছেলেকে পিটিয়ে মেরে ফেললো। আমি ছেলে হত্যার বিচার চাই।

মনোহরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনিচুর রহমান বলেন, ঘটনার সাথে জড়িত হৃদয় ও মৃদুলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারের অভিযান চলছে।

এমএন

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS