Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

২১ বছর পর পিতৃত্বের দাবিতে এলাকায় চাঞ্চল্য

২১ বছর পর পিতৃত্বের দাবিতে এলাকায় চাঞ্চল্য
ছবি: আরটিভি

এলাকার বিতর্কিত মেম্বার ও চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল হালিমকে পিতা দাবি করে সংবাদ সম্মেলন করেছেন আব্দুল হাকিম নামের এক যুবক। ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পর কক্সবাজার জুড়ে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনা নিয়ে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নাজনীন সরওয়ার কাবেরী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেজবুকে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন। যা ইতোমধ্যে ব্যাপক ভাইরাল হয়েছে। ওই ভিডিওতে ছেলে আব্দুল হাকিমের সাথে তার মা মাজেদা খাতুনকেও দেখা গেছে। ওই ভিডিও’র সূত্র ধরে এ ঘটনাটি নিশ্চিত হওয়া গেছে।

জানা গেছে, মেম্বার আব্দুল হালিমের ঘরে গৃহকর্মী হিসেবে কাজ করতেন মাজেদা খাতুন। সে সময় অর্থাৎ ২০০০ সালের দিকে তাদের দুজনের মধ্যে অনৈতিক সর্ম্পকের সৃষ্টি হয়। এর জের ধরে ২০০১ সালে জন্ম নেয় আব্দুল হাকিম। ঘটনাটি টাকা-পয়সার বিনিময়ে ধামাচাপা দিলেও পরে তা প্রকাশ হয়ে যায়। কিন্তু আব্দুল হাকিম মেম্বার আব্দুল হালিমের ঔরসজাত সন্তান হিসেবে জন্মগ্রহণ করলেও মা ও তার স্বীকৃতি মেলেনি। ফলে হাকিম এখনও জন্ম নিবন্ধন করতে পারেননি।

এ নিয়ে আব্দুল হাকিম জানান, তার গর্ভধারিণী মায়ের কাছ থেকে জানতে পারেন, তার পিতা আবদুল হালিম মেম্বার এবং মায়ের হাত ধরে অসংখ্যবার পিতার কাছেও যান। তার পিতার নির্বাচনী কর্মকাণ্ডে অবিরাম পরিশ্রমও করেন। তিনি জানান, পিতা আবদুল হালিম মেম্বার তাকে বুকে জড়িয়ে ধরে আদর করেন। মাথায় হাত বুলিয়ে দিয়ে দোয়া করেন। কিন্তু পিতার রাজনৈতিক শত্রু ও সামাজিক অবস্থানসহ নানা সমীকরণ দেখিয়ে তাদেরকে এখনও স্বীকৃতি দেননি পিতা আব্দুল হালিম মেম্বার।

আব্দুল হাকিম আরও জানান, তার বয়স বাড়ার কারণে পিতৃত্বের প্রয়োজনীয়তা উপলব্ধি করেন। বিষয়টি নিয়ে মা-ছেলে আব্দুল হালিম মেম্বারের সাথে যোগাযোগ করেন। তারা ঘরোয়াভাবে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করেন। কিন্তু আবদুল হালিম মেম্বার কৌশলে সময়ক্ষেপণ করতে থাকায়, শেষ পর্যন্ত বাধ্য হয়ে পিতৃত্বের দাবিতে মা ও ছেলে সংবাদ সম্মেলন করতে বাধ্য হয়েছেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত আব্দুল হালিম মেম্বার জানান, তিনি আগামীতে চেয়ারম্যান নির্বাচন করবেন। তাই তার প্রতিপক্ষরা তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। ঘটনাটি সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন বলে দাবি করলেও ডিএনএ টেস্টের কথা বলায় তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান।

কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নাজনীন সরওয়ার কাবেরী জানান, আমরা সন্তানের স্বীকৃতির জন্য মাজেদার সাথে আব্দুল হালিম মেম্বারের বিবাহের দাবি করছি। বিয়ে না হলে ডিএনএ টেস্টের মাধ্যমে আইনের আশ্রয় নিতে বাধ্য হব।

জেএইচ

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS