Mir cement
logo
  • ঢাকা বুধবার, ০৪ আগস্ট ২০২১, ২০ শ্রাবণ ১৪২৮

রিমান্ডে দুই ভাইয়ের চোখবাধা ছবি নিয়ে ফরিদপুরে আলোচনার ঝড়

রিমান্ডে দুই ভাইয়ের চোখবাধা ছবি নিয়ে ফরিদপুরে আলোচনার ঝড়
ফাইল ছবি

ফরিদপুরে আবারও আলোচনায় এলেন রাজনৈতিক অঙ্গনের দুই সহোদর ফরিদপুর শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন বরকত ও জেলা প্রেসক্লাবের অব্যাহতিপ্রাপ্ত সভাপতি ইমতিয়াজ হাসান রুবেল।

ফরিদপুরের বহুল আলোচিত এই দুই ভাই রুবেল ও বরকতের পুলিশ রিমান্ডে থাকা অবস্থায় চোখ বাধা ছবি এক বছর পর সম্প্রতি আবারও ভাইরাল হয় সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে। এ নিয়ে ফরিদপুরের রাজনৈতিক অঙ্গনসহ সর্বত্র ওঠে সমালোচনার ঝড়।

ফরিদপুর শহরের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মাসুক চৌধুরীর নিজস্ব ফেসবুক আইডি থেকে সম্প্রতি কিছু ছবি পোস্ট করা হয়। সেখানে দেখা যায় ফরিদপুর শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন বরকত ও ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ইমতিয়াজ হাসান রুবেল রিমান্ডে থাকাকালীন তাদের চোখবাধা ছবি।

পোস্টের সাথে মন্তব্য করা হয় ‘কমেন্ট ও লাইক দিন, কিসের ভয়! সত্যিকারের মুজিব সেনারা কখনই ভয় ও পরাজয় শব্দকে চেনে না। বরং এসব শব্দের উপর থুথু মারে। আর কেউ হুমকি দিলে নম্বরটা আমার বরাবর পাঠাবেন।’

পুলিশের একটি সূত্র জানায়, এর পর পরই ফরিদপুর জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে নেয়া হয় মাসুক চৌধুরীকে। অবশ্য জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়। জিজ্ঞাসাবাদে মাসুক চৌধুরী জানান, সদ্য বড় পদ পাওয়া জেলা যুবলীগের এক নেতার কাছ থেকে এইসব ছবি পেয়েছেন।

পুলিশ সূত্র জানা যায়, নাম আসা ওই পুলিশ কর্মকর্তা ছাড়া সবাইকেই জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। ওই পুলিশ কর্মকর্তাকেও জিজ্ঞাসাবাদের আওতায় আনার সম্ভাবনা রয়েছে।

পুলিশ রিমান্ডে থাকা অবস্থায় এই স্পর্শকাতর ছবি কিভাবে ভাইরাল হলো, তা নিয়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা চলছে।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৭ জুন পুলিশের এক বিশেষ অভিযানে গ্রেপ্তার হন দুই ভাই রুবেল ও বরকত। পরে তাদের একের পর এক মামলা দিয়ে দীর্ঘদিন রিমান্ডে রাখা হয়। তারা এক বছরের বেশি সময় ধরে জেলে রয়েছেন।

এসএস

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS