Mir cement
logo
  • ঢাকা বুধবার, ০৪ আগস্ট ২০২১, ২০ শ্রাবণ ১৪২৮

হোসাইন আহমদ সুজাদ (সিলেট প্রতিনিধি), আরটিভি নিউজ

  ১৮ জুন ২০২১, ১১:০৭
আপডেট : ১৮ জুন ২০২১, ১৪:২৯

সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রথম ফাঁ'সি কার্যকর

সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রথম ফাঁসি কার্যকর
সিরাজুল ইসলাম সিরাজ

দীর্ঘ ১৭ বছর আগে স্ত্রী হত্যার দায়ে সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে সিরাজুল ইসলাম সিরাজ নামে এক আসামির ফাঁসি কার্যকর করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) রাত ১১টায় তার ফাঁসি কার্যকর হয়। সিরাজ হবিগঞ্জ জেলার রাজনগর কবরস্থান এলাকার মৃত আবুল হোসেনের ছেলে। সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে এটাই প্রথম ফাঁসি কার্যকরের ঘটনা। আরটিভি নিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের জেল সুপার মোঃ মঞ্জুর হোসেন।

ফাঁসি কার্যকর করেন জল্লাদ শাহজাহান। যিনি যুদ্ধাপরাধের দায়ে দণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী, জামাত নেতা আলী আহসান মুজাহিদ, কাদের মোল্লার ফাঁসি কার্যকর করেছিলেন। এর আগে শাহজাহানকে সোমবার বিকেলে কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে কাশিমপুর কারাগার সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে আসা হয়।

জেল সুপার মঞ্জুর হোসেন বলেন, ফাঁসি কার্যকর করার আগে সিরাজের ইচ্ছে অনুযায়ী তার পরিবারের সাথে দেখা করার ব্যবস্থা করে দেয় কারা কর্তৃপক্ষ। ফাঁসির মঞ্চে ওঠার আগে সিরাজ খুব শান্ত ছিলেন। কারারীতি অনুযায়ী ফাঁসির মঞ্চে নেওয়ার আগে তাকে গোসল করানো হয়। বৃহস্পতিবার রাত ১০টা ১৫ মিনিটে তওবা পড়ানো হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১১টায় সিরাজের ফাঁসি কার্যকর হয়।

মঞ্জুর হোসেন আরও বলেন, স্ত্রীকে হত্যার দায়ে সিরাজুল ইসলামকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেন আদালত। প্রাণভিক্ষা চেয়ে রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন করলে তার আবেদন মঞ্জুর হয়নি।

কারা সূত্র জানিয়েছে, ২০০৪ সালে পারিবারিক বিরোধের জের ধরে সিরাজুল ইসলাম সিরাজ তার স্ত্রী সাহিদা আক্তারকে শাবল ও ছুরি দিয়ে হত্যা করেন। এ ঘটনায় হবিগঞ্জ থানায় ২০০৪ সালের ৭ মার্চ হবিগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহতের ভাই। দীর্ঘ শুনানির পর ২০০৭ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি সিলেট জেলা ও দায়রা জজ আদালতের দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক তার ফাঁসি ও ১০ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দেন। এই রায়ের বিরুদ্ধে সিরাজ হাইকোর্টে জেল আপিল (নং-১৫৮/২০০৭) করেন। পরে ডেথ রেফারেন্সের (নং-১৮/০৭) আলোকে ২০১২ সালের ১ আগস্ট হাইকোর্ট সিরাজের জেল আপিল নিষ্পত্তি করে সিলেটের আদালতের রায়ই বহাল রাখেন।

ওই রায়ের বিরুদ্ধে সিরাজ সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগেও জেল পিটিশন (নং-২৬/১২) দাখিল করেন। শুনানি শেষে আপিল বিভাগ ২০২০ সালের ১৪ অক্টোবর রায়ে সিরাজের আপিল বাতিল করে ডেথ রেফারেন্সের সিদ্ধান্তই বহাল রাখেন। এরপর সিরাজ প্রাণভিক্ষা চেয়ে আবেদন করলে এ বছরের ২৫ মে রাষ্ট্রপতি তা না মঞ্জুর করেন।

এমআই

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS