Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ১৩ মে ২০২১, ১২:০১
আপডেট : ১৩ মে ২০২১, ১২:০৪

কক্সবাজারে হোটেল রুমে নারীর সঙ্গে বাবুলকে দেখে ফেলেন মিতু

কক্সবাজারে হোটেল রুমে নারীর সঙ্গে বাবুলকে দেখে ফেলেন মিতু
ফাইল ছবি

আলোচিত সাবেক এসপি বাবুল আকতার এতদিন তার স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যার বাদী ছিলেন। এখন এই হত্যাকাণ্ডের মূল হোতা হিসেবে পুলিশ রিমান্ডে তিনি। বুধবার (১২ মে) তাকে গ্রেপ্তারের পর তার সম্পর্কে চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে আসে।

জানা গেছে, পুলিশে চাকরি হওয়ার পর তার যে নৈতিক স্খলন ঘটে সেটি প্রকাশ্যে আসছে। মিতুর বাবা ও মায়ের জবানবন্দীতে এই অভিযোগ স্পষ্ট হয়ে উঠেছে যে পরকীয়ায় বাধা হওয়ায় মিতুকে খুন করে সরিয়ে দেন বাবুল আকতার। এমনকি খুন হওয়ার আগে হোটেলে নারীর সঙ্গে বাবুলকে দেখে ফেলেন মিতু।

নিহত মিতুর মা সাহেদা মোশাররফ বলেন, বিয়ের পর বাবুলের সঙ্গে মিতুর সম্পর্ক ভালোই চলছিলো। আমার দুই মেয়ে। কোনো ছেলে নেই। বাবুল আক্তারকে নিজের ছেলের মতো করে দেখেছি। বিয়ের পর বাবুল আমার বাসায় বেশি ভাগ সময় থেকেছে। আমার এখানে থেকে চাকরির জন্য লেখাপড়া করেছে। পরে বেকার বাবুলের ব্যাংকে চাকরি হয়েছে। সেই চাকরি থাকা অবস্থায় বাবুল বিসিএস দিয়ে পুলিশ কর্মকর্তা হয়। বাবুল পুলিশ হওয়ার পর থেকেই পরিবর্তন আসা শুরু হলো। আমার মেয়ে মিতুকে খুব অবহেলা করত।

তিনি আরও বলেন, পুলিশের দাপট আর টাকার জোরে বিভিন্ন নারীর সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন বাবুল। আমার মেয়ে একদিন রাত ৩টার সময় মোবাইলে কল দিয়ে বলেছিল, মা, আমি কালই ঢাকায় চলে আসব। তখন আমি মিতুর কাছে জানতে চেয়েছিলাম, কী হয়েছে? মিতু তখন বলেছিল, কক্সবাজারের একটি হোটেলে একজন নারীর সঙ্গে বাবুলকে দেখেছে মিতু। অনেক বার আমার মেয়ে আমাকে বলেছিল। শুধু দুই সন্তানের ভবিষ্যতের কথা ভেবে সে বাবুলের সঙ্গে সংসার করেছে।

এ দিকে বুধবার (১২ মে) বাবুল আক্তারকে প্রধান আসামি করে মিতুর বাবা মোশারফ হোসেন যে মামলা করেছেন তাতেও সাবেক পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে পরকীয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ৫ জুন সকালে চট্টগ্রাম নগরীর জিইসি মোড়ে ছেলেকে স্কুল বাসে তুলে দিতে যাওয়ার সময় সড়কে খুন হন পুলিশ কর্মকর্তা বাবুল আক্তারের স্ত্রী মিতু।

জিএম

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS