Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

গাজীপুর প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ১৫ এপ্রিল ২০২১, ১৪:৪৫

বন্ধুদের নিয়ে ছাগল জবাই করে খেয়ে ফেলায় পিটিয়ে খুন 

He slaughtered a goat with his friends and ate it
প্রতীকী ছবি

গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলায় আজিজুর রহমান খানের (৩৫) খেতের সবজি নষ্ট করছিল প্রতিবেশীর ছাগল। এই সমস্যার কথাটি বেশ কয়েকবার ছাগল মালিককে জানিয়েও কোনো ফলাফল পাননি তিনি। সমাধান না পেয়ে রাগে ক্ষোভে সেই ছাগল জবাই করে তার মাংস খেয়ে নেন আজিজুর রহমানসহ তার বেশ কয়েকজন বন্ধু।

অন্যদিকে সেই ঘটনার সূত্র ধরে ছাগল মালিক আজহারের ছেলে মোস্তফার (২৪) নেতৃত্বে তার পরিবারের লোক আজিজুর রহমানকে বেদম মারধর করেন। এর পরে গুরুতর রক্তাক্ত অবস্থায় আজিজুরকে উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহম্মেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

বুধবার (১৪ এপ্রিল) উপজেলার জাঙ্গালীয়া ইউনিয়নের রয়েন গ্রামে বুধবার এ ঘটনা ঘটে। পরে বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) সকালে নিহতের স্ত্রী আসমা আক্তার (২৪) বাদী হয়ে মোস্তফাকে প্রধান করে ৬ জনের নামে ও ৩ থেকে ৪ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে কালীগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

নিহত আজিজুর রহমান খান কালীগঞ্জ উপজেলার জাঙ্গালীয়া ইউনিয়নের রয়েন গ্রামের মৃত আবুল হাশেম খানের ছেলে।

পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে প্রতিবেশীর এক ছাগল আজিজুর রহমানের সবজি খেতে প্রবেশ করে কিছু সবজি খেয়ে ফেলে। সেই ছাগলটিকে আজিজুর দা দিয়ে ধাওয়া করলে ছাগলটি গুরুতর আহত হয়। পরে ছাগলটি একই দিন রাতেই জবাই করে বন্ধুদের নিয়ে খেয়ে ফেলেন তিনি।

তারপর বুধবার (১৪ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আজিজুর তার বাড়ি থেকে বের হলে ওই ঘটনার জেরে ছাগল মালিকের ছেলে মোস্তফাসহ অন্যরা আজিজুরকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। এ সময় গুরুতর রক্তাক্ত জখম অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে বিকেল ৩টার দিকে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহম্মেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

কালীগঞ্জ থানার ওসি একেএম মিজানুল হক বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এই ঘটনার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। আসামিরা পলাতক রয়েছে। তবে তাদের গ্রেপ্তারে পুলিশ কাজ করছে।

জিএম

RTV Drama
RTVPLUS