Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

প্রেমিকার কাছে গিয়ে অপহরণ ব্যবসায়ী, প্রেম করাই তাদের কাজ!

Abducted businessman to go to the lover, their job is to make love!
প্রেমিকার কাছে গিয়ে অপহরণ ব্যবসায়ী, প্রেম করাই তাদের কাজ!

সিরাজগঞ্জে প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রেমিককে অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায়ের অভিযোগে কথিত প্রেমিকাসহ অপহরণ চক্রের ৩ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১২। একই সাথে অপহৃত ব্যবসায়ী রামচন্দ্র সাহাকেও উদ্ধার করেছে র‌্যাব।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, বেলকুচি থানার দূলরা খালী পেরীর মোড় এলাকার শারমিন খাতুন। সিরাজগঞ্জ সদর থানার খোকশাবাড়ী প্রামানিক পাড়া মহল্লা গ্রামের সাইফুল ইসলাম। মরিয়ম বেগম। তাদের বিরুদ্ধে বেলকুচি থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। অন্যদিকে উদ্ধারকৃত রামচন্দ্র সাহার বাড়ি বগুড়া জেলার গাবতলী থানার নেপালতলী গ্রামে।

র‌্যাব-১২ এর মিডিয়া অফিসার সহকারী পুলিশ সুপার মুহাম্মদ মহিউদ্দিন মিরাজ জানান, বগুড়ায় চাকরির সুবাদে সোসিও ইকোনমিক ব্যাংকিং এসোসিয়েশন (সেবা) বগুড়া শাখায় কর্মরত শারমিন খাতুন (২১) বগুড়ার ব্যবসায়ী রাম চন্দ্র সাহার সাথে প্রতারণার অংশ হিসেবে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। পরে রামচন্দ্র সাহার দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে বিভিন্ন সময় সে তার নিকট কাছ থেকে আর্থিক সহায়তাও নিয়েছেন। পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী গত ৭ এপ্রিল আসামি শারমিন খাতুন একান্ত সাক্ষাৎ এবং তার পাওনা টাকা পরিশোধের আশ্বাস দিয়ে ব্যবসায়ী রামচন্দ্র সাহাকে সিরাজগঞ্জ আসতে বলে। একই দিন রাম চন্দ্র সাহা সিরাজগঞ্জে আসলে শারমিন তাকে কৌশলে বেলকুচি থানার চর নবীপুর একটি বাড়িতে নিয়ে যায়। এই বাড়িতে পূর্ব থেকেই অপহরণ চক্রের অপর দুই সহযোগী অপেক্ষা করছিল। তারা রাম চন্দ্র সাহার হাত পা বেঁধে রাখে এবং অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে।

পরে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন থেকে তার স্ত্রীকে ফোন করে ২০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। ধারনা করা হচ্ছে এই চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে মানুষকে বিভিন্ন ভাবে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে মুক্তিপণ আদায় করে আসছিল।

জিএম

RTV Drama
RTVPLUS