Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ১৬ মে ২০২১, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ১০ এপ্রিল ২০২১, ২০:০৬
আপডেট : ১০ এপ্রিল ২০২১, ২১:০৮

ছাত্রীকে চতুর্থ বিয়ে করে ফেঁসে গেলেন স্কুলশিক্ষক 

The school teacher got stuck after marrying the student for the fourth time
ছাত্রীকে চতুর্থ বিয়ে করে ফেঁসে গেলেন স্কুলশিক্ষক 

সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলায় হিন্দু সম্প্রদায়ের এক কলেজছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্মান্তরিত করে বিয়ে করার অভিযোগে নুরনগর আশালতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শামীম আহমেদকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

শনিবার (১০ এপ্রিল) সকাল ১১টায় বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। একই সঙ্গে তাকে কেন স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হবে না, তা জানতে চেয়ে ৭ দিনের মধ্যে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে।

ওই ছাত্রীর বাবা জানান, ২০১৯ সালে তার মেয়ে নূরনগর আশালতা মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে বিজ্ঞান বিভাগে এসএসসি পাস করে। ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শামীম আহমেদ (৪৮) তাকে বিভিন্ন সময়ে বিজ্ঞানের ব্যবহারিক খাতার কাজে সহযোগিতা করতেন। পরে তার মেয়ে কার্টুনিয়া রাজবাড়ি ডিগ্রি কলেজে ভর্তি হয়। তার মেয়ে পার্শ্ববর্তী এক গ্রামের একজন শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার সময় শিক্ষক শামীম তাকে উত্ত্যক্ত করতেন। গত ২ এপ্রিল ভোরে প্রাইভেট পড়ে কলেজে যাওয়ার নাম করে বাড়ি থেকে বের হয়। দুপুরের মধ্যে বাড়ি না ফিরলে তাকে খুঁজতে থাকেন পরিবারের সদস্যরা। খুঁজে না পেয়ে পরদিন তিনি শ্যামনগর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।

পরে বুধবার (৭ এপ্রিল) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তার মেয়ে ও প্রধান শিক্ষক শামীম আহমেদ খুলনার এক নোটারি পাবলিকের কার্যালয়ে বসে ধর্মান্তরিত হওয়া ও বিয়েসংক্রান্ত এক নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর করছেন এমন ছবি দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা তাকে জানান। একপর্যায়ে ওই রাতেই তিনি শামীম আহমেদ এর বিরুদ্ধে থানায় মেয়েকে অপহরণ ও ধর্মান্তরিত করার অভিযোগে একটি এজাহার দাখিল করেন।

শনিবার (১০ এপ্রিল) হিন্দুছাত্রীকে ধর্মান্তরিত করে বিয়ের বিষয়টি জানাজানি হলে আশালতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাকক্ষে একটি জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভাপতি বখতিয়ার আহমেদের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন সহকারী প্রধান শিক্ষক আব্দুস সবুর, পরিচালনা কমিটির সদস্য ও ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান হবি, সদস্য আব্দুল কাদের, সদস্য শাকির আহম্মেদ, ইউপি সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান, বিদ্যোৎসাহী সদস্য জি এম মঈনুদ্দিন লাভলু, অভিভাবক সদস্য ডি এম রবিউল ইসলাম মুকুল, শিক্ষক সুশান্ত ঘোষসহ কয়েকজন অভিভাবক। এ সভায় প্রধান শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্তের সিদ্ধান্তসহ তাকে কেন স্থানীয়ভাবে বরখাস্ত করা হবে না তা জানতে চেয়ে নোটিশ প্রাপ্তির ৭ দিনের মধ্যে ওই শিক্ষককে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে।

নূরনগর আশালতা মাধ্যমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি বখতিয়ার আহম্মেদ বলেন, অভিযুক্ত শামীমকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। কারণ দর্শানোর নোটিশের জবাব দেয়ার পর অন্য ব্যবস্থা নেয়া হবে। প্রয়োজনে ঘটনার তদন্তে ৩ সদস্যের কমিটি গঠন করা হবে। পরে তাদের প্রতিবেদন অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এই ঘটনার বিষয়ে শ্যামনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল হুদা জানান, এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা বাদি হয়ে শামীম আহমেদের নাম উল্লেখ করে শুক্রবার (৯ এপ্রিল) রাতে থানায় একটি মামলা (১৬) দায়ের করেছেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই দীপ্তেশ রায়কে আসামি গ্রেপ্তার ও ভিকটিম উদ্ধারের জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

জিএম/পি

RTV Drama
RTVPLUS