Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ১৬ মে ২০২১, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮
অনলাইন ডেস্ক
  ০৬ এপ্রিল ২০২১, ২৩:২৮
আপডেট : ০৭ এপ্রিল ২০২১, ০০:০২

মামুনুলের কাছে ক্ষমা না চাওয়ায় সাংবাদিককে মারধরের অভিযোগ, বাড়ি ভাঙচুর

মামুনুলের কাছে ক্ষমা না চাওয়ায় সাংবাদিককে মারধরের অভিযোগ, বাড়ি ভাঙচুর
ফাইল ছবি

হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের কাছে প্রকাশ্যে ক্ষমা না চাওয়ায় নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের স্থানীয় এক সাংবাদিককে মারধর ও বাড়িঘরে ভাঙচুর চালানোর অভিযোগ উঠেছে।

সোমবার রাতের দিকে সোনারগাঁ উপজেলা সনমান্দি ইউনিয়নের নাজিরপুর ভান্টি চর এলাকায় চ্যানেল এস এর সোনারগাঁ প্রতিনিধি হাবিবুর রহমানের উপর এই হামলার ঘটনা ঘটে।

এসময় হেফাজতের নেতাকর্মীরা সাংবাদিক হাবিবকে মারধর করে ঘরের বাইরে নিয়ে আসেন। পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ক্ষমা চাইতে বলেন মামুনুল হকের কাছে।

সেই ভিডিওতে দেখা গেছে, মামুনুল হকের অনুসারীরা সাংবাদিক হাবিবকে লাঞ্ছিত করছে। তাদের মধ্যে একজন বলছে, হুজুর (মামুনুল হক) কাছে মাফ চাইতে হবে, হুজুর যাতে আপনাকে ক্ষমা করে দেয় এ জন্য।

আরেকজন বলছেন, আপনি বলবেন, হুজুর (মামুনুল হক) কাছে আমি ক্ষমা চাই। সাংবাদিক হিসেবে সেখানে গিয়ে ভুল করেছি। আপনি আমাকে ক্ষমা করে দিবেন।

তাদের কথা মতো ক্ষমা না চাওয়া সাংবাদিক হাবিবকে টেনে হিঁচড়ে মারধর করে করে সড়কের পাশে নিয়ে যায়। সেখানে কয়েক দফায় মারধর করে হাবিবের দাঁত ভেঙে ফেলে। এসময় ৯৯৯ নাম্বারে ফোন করে পুলিশ আনেন স্থানীয় সাংবাদিক হাবিবের ছোট ভাই মোফাজ্জল হোসেন।

তিনি জানান, ঘরে ঘুমন্ত অবস্থা ছিল বড় ভাই হাবিব। রাত সাড়ে নয়টার দিকে হেফাজতের নেতাকর্মীরা লাঠিসোটা নিয়ে তাদের বাড়িতে হামলা করে। তারা ঘরের বিভিন্ন আসবাপত্র ভাংচুর করে। টেনে হিঁচড়ে ঘরের বাইরে নিয়ে যায় হাবিবকে।

মোফাজ্জল হোসেন আরও বলেন, মামুনুল হকের বাহিনী কয়েক দফায় লাঠি দিয়ে পিটিয়েছে হাবিবকে। মারধর করে হাবিবের দাঁত ভেঙে ফেলেছে। তাদের কাছ থেকে ভাইকে বাঁচাতে না পেরে ৯৯৯ নাম্বারে ফোন করে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। কিছুক্ষণ পর পুলিশ এসে তাদের কাছ থেকে হাবিবকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

সোনারগাঁ থানার পুলিশ পরিদর্শক তবিদুর রহমান জানান, স্থানীয় সাংবাদিক হাবিবের উপর হামলা চালিয়ে হেফাজতের সমর্থকরা। তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করা হয়েছে।

এসএস

RTV Drama
RTVPLUS